Solar Eclipse 2019: সূর্যের বলয়গ্রাস দেখার ছবি দিয়ে টুইটারে ট্রোলড নরেন্দ্র মোদি, সানন্দে গ্রহণ করলেন নেটিজেনের কটাক্ষ
নেটিজেনের কটাক্ষের জবাব নরেন্দ্র মোদির

নতুন দিল্লি, ২৬ ডিসেম্বর: দশকের শেষ বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণকে (Solar Eclipse) কেন্দ্র করে দেশবাসীর উন্মাদনা ছিল তুঙ্গে। তবে শুধু আমজনতার মধ্যেই নয় সেই উৎসাহের ঢেউ ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) মধ্যেই। দশকের শেষ সূর্যগ্রহণ দেখতে তিনিও আকাশের দিকে তাকিয়ে ছিলেন। কিন্তু আকাশ মেঘালা থাকায় তাঁকে হতে হয় হতাশ। আর সেই কথাই এদিন টুইটারে (Twitter) জানান প্রধানমন্ত্রী। চশমা পরে আকাশের দিকে তাকিয়ে থাকাসহ মোট তিনটি ছবি মোদি টুইট করেন। আর ক্যাপশনে লেখেন, "অনেক উৎসাহ নিয়ে দেশের অন্য সব মানুষের মতো সূর্যগ্রহণ দেখার জন্য অপেক্ষায় ছিলাম। কিন্তু দূর্ভাগ্যবশত আকাশ মেঘলা থাকায় তা দেখার সৌভাগ্য হল না। যদিও কোঝিকোড় ও দেশের অন্য প্রান্ত থেকে হওয়া সরাসরি সম্প্রচারের মাধ্যমে দশকের শেষ মহাজাগতিক ঘটনার স্বাক্ষী থেকেছি।"

তবে এখানেই চমক শেষ নয়। প্রধানমন্ত্রীকে ফলো করা গাপিস্তান রেডিও (Gappistan Radio) নামের এক টুইটার হ্যান্ডেল থেকে মোদির চশমা করে আকাশের দিকে সেই ছবি টুইট করা হয়। তাতে লেখা হয়, "এই ছবিটি একটি মেম হয়ে উঠছে।" এরপরই সকলকে অবাক করে দিয়ে মোদি রিটুইট করে তাতে লেখেন, "মোস্ট ওয়েলকাম। এনজয়।" আধ ঘণ্টার মধ্যেই মোদির ওই টুইট ভাইরাল হয়ে যায়। এখন ও পর্যন্ত অন্তত ৫০ হাজার ব্যবহারকারী টুইটটি লাইক করেছেন। অন্তত ১২ হাজার ব্যবহারকারী রিটুইট করেছেন। আরও পড়ুন: Solar Eclipse 2019: বর্ষ শেষের খণ্ডগ্রাস সূর্যগ্রহণ, আঁধারে ঢাকল পশ্চিমবঙ্গ(দেখুন ভিডিও)

বৃহস্পতিবার সকাল আটটা থেকে শুরু হওয়া সূর্যগ্রহণ চলবে বেলা ১১টা ৩২ মিনিট পর্যন্ত। এদিন সকাল থেকেই কুয়াশায় ঢাকা আকাশ, সঙ্গে মেঘ। তাই অন্তত সকাল নটা পর্যন্ত গ্রহণ দেখা গেল মেঘ-কুয়াশার আস্তরণের মাঝখান দিয়ে। খণ্ডগ্রাস সূর্যগ্রহণ নিয়ে তেমন উন্মাদনা দেখা যায় না, তবে এখনও সকাল বেলা গ্রহণ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বেজে ওঠে শাঁখ, অনেকেই গ্রহণের সময় কোনও রকম খাবার খান না। এ দিনও ব্যতিক্রম হয়নি। সাধরণত খালি চোখে সূর্যগ্রহণ দেখা যায় না সূর্যের তেজের জন্যই। আজ যদিও মেঘ ও বৃষ্টির মেলবন্ধনে সেই তেজ উধাও। হঠাৎ করে দেখলে মনে হবে ডিসেম্বরের নয় আগস্টের বর্ষণমুখর দিন আজ।

এদিন গ্রহণ দেখা যায় কলকাতা-সহ গোটা ভারতে। দক্ষিণের রাজ্য, কেরল ও তামিলনাড়ুর আকাশে সবচেয়ে বেশি ঢাকা পড়েছিল সূর্য, প্রায় ৯৩ শতাংশ। অবশ্য মধ্য ভারত, পশ্চিম ভারত ও পূর্ব ভারতে সূর্যের ৩০ শতাংশ পর্যন্ত ঢেকে যাওয়া অংশ দেখা গেছে। কলকাতা থেকেও তাই। সকালেই ৮টা ২৭মিনিট থেকে শুরু হয়েছে খণ্ডগ্রাস সূর্যগ্রহণ। চলবে বেলা ১১টা ৩২ মিনিট পর্যন্ত। সর্বোচ্চ পর্যায়ে ৩ মিনিট ৪০ সেকেন্ড স্থায়ী হবে গ্রহণ।