Uttar Pradesh Elections 2022: জনমত সমীক্ষা বন্ধ করতে কমিশনের দ্বারস্থ অখিলেশ যাদব
Akhilesh Yadav With Dimpal Yadav (Photo Credit: Twitter)

লখনউ, ২৩ জানুয়ারি: উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের আগে সমস্তরকম জনমত সমীক্ষা বা ওপিনিয়ন পোল বন্ধ করার দাবিতে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল সমাজবাদী পার্টি। যেভাবে বিভ্রান্তকর ও ভুল জনমত সমীক্ষা বা ওপিনিয়ন পোল সংবাদমাধ্যমে প্রচার করে ভোটারদের প্রভাবিত করা হচ্ছে, তার বিরুদ্ধে কমিশনে গেল সমাজবাদী পার্টি। অখিলেশ যাদবের দলের অভিযোগ, টিভি-সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে পুরোপুরি ভিত্তিহীন ওপিনিয়ন পোল দেখিয়ে বলা হচ্ছে বিজেপি বড় জয় পাচ্ছে। এতে ভোটাররা প্রভাবিত হতে পারে। যেহেতু ভোট প্রচারের বেশিরভাগটাই ভার্চুয়ালি হচ্ছে, তাই ওপিনিয়ন পোল এখনই বন্দ করা উচিত কমিশনের। তা না হলে অর্থের জোরে ওপিনিয়ন পোলে নিজেদের জয় দেখিয়ে ফ্লোটিং ভোটারদের প্রভাবিত করবে বিজেপি।

ভোট পুরোপুরি না মিটলে এক্সিট পোল নিষিদ্ধ থাকলেও, ভোটের আগে ওপিনিয়ন পোল বা সমীক্ষায় কোনও বাধা নেই। প্রায় সব কটা ওপিনিয়ন পোলেই দেখানো হচ্ছে উত্তরপ্রদেশে ফের ক্ষমতায় আসছে যোগী আদিত্যনাথ। অখিলেশ যাদবের দলের অভিযোগ, এসবই মিথ্যা প্রচার। এই মিথ্যা প্রচারে ভোটাররা প্রভবিত হতে পারেন বলে আশঙ্কা সমাজবাদী পার্টির।

৪০৩টি বিধানসভা আসনে গত বিধানসভা ভোটে বিজেপি জিতেছিল ৩১২টি আসনে, ক্ষমতাসীন দল এসে লড়ে সমাজবাদী পার্টি পেয়েছিল মাত্র ৪৭টি আসন। বিভিন্ন ওপিনিয়ন পোল অনুযায়ী এবারও ইউপি-তে ৩০০টি-রও বেশি আসনে জিততে চলেছে বিজেপি। যদিও করোনা নিয়ে যোগী সরকারের ভূমিকা, মূল্যবৃদ্ধি, আইনশৃঙ্খলা সহ নানা ইস্যুতে প্পতিষ্ঠান বিরোধী হাওয়া রয়েছে উত্তরপ্রদেশে। তবে ওপিনিয়ন পোলে দেখা যাচ্ছে বিজেপি এসব সত্ত্বেও এগিয়ে রয়েছে।

উত্তরপ্রদেশে সাত দফায় ভোটগ্রহণ হবে। প্রথম দফায় ভোট হবে ১০ ফেব্রুয়ারি। দ্বিতীয় দফা-১৪ ফেব্রুয়ারি, তৃতীয় দফা-২০ ফেব্রুয়ারি, চতুর্থ দফা-২৩ ফেব্রুয়ারি, পঞ্চম দফা-২৭ ফেব্রুয়ারি, ষষ্ঠ দফা-৩ মার্চ এবং সপ্তম দফা-৭ মার্চ। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ লড়ছেন গোরক্ষপুর আসন থেকে। অন্যদিকে, বিরোধী দলের মুখ অখিলেশ যাদব লড়ছেন কারহাল কেন্দ্র থেকে।