Triple Talaq Bill: তিন তালাক বিলের আইনে স্থগিতাদেশের আবেদন, সুপ্রিম কোর্টে জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দ
প্রতীকী ছবি(Photo Credit: Twitter)

দিল্লি, ২২ আগস্ট: তিন তালাক বিল (Triple Talaq Bill)সংসদের দুই কক্ষে পাস হয়ে গিয়েছে অনেক দিন হল। এখন এই বিল শুধু আইনে পরিণত হওয়ার অপেক্ষা মাত্র। তারপরই বিবাহিত মুসলিম মহিলাদের উপরে হওয়া অন্যায়ের যোগ্য শাস্তি দেওয়ার সুযোগ আসবে। কিন্তু তিন তালাক বিল আইনে পরিণত হওয়ার আগেই সুপ্রিম কোর্টে চ্যালেঞ্জ করল জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দ (Jamiat Ulama-I-Hind ) । যাতে তিন তালাক বিল আইনে পরিণত হওয়ার পন্থাকে দেশের শীর্ষ আদালত স্থগিতাদেশ দেয়, এই মর্মেই আবেদন পেশ করা হল। জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দের অভিযোগ, মুসলিম মহিলাদের রক্ষকারী এই আইন আসলে সংবিধানের পরিপন্থী।

জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দের বক্তব্য, এই নয়া বিল যাতে আইনে পরিণত হতে না পারে তারজন্য সর্বতোভাবে চেষ্টা করা হবে। এরজন্য সুপ্রিম কোর্টে মামলা লড়তেও প্রস্তুত জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দ। বিবাহিত মুসলিম মহিলাদের রক্ষাকারী নয়া বিল, আসলে বিনা কারণেই মুসলিম পুরুষদের হয়রান করবে। সামান্য দাম্পত্য কলহ হলেও সেটাকে তালাকের অভিযোগে অভিযু্ক্ত করে ওই পুরুষকে জেল খাটাতে বাধ্য করবে। এদিকে এই আইন তিন তালাককে অবৈধ ঘোষণা করেছে। যে স্বামী স্ত্রীকে তিন তালাক দেবে সেই স্বামীকে এই আইনের বিচারে তিন বছর জেলের সাজা ভোগ করতে হবে। এভাবে হিন্দুদের পরিচালিত আইনে মুসলিমদের সাজা ভোগ মানতে রাজি নয় জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দু, এমনটাই জানা গিয়েছে। আরও পড়ুন-এবার আইএলএফএস মামলায় আজ ইডির দপ্তরে জেরার মুখোমুখি রাজ ঠাকরে, পুলিশি প্রহরায় মুড়ল মুম্বই

উল্লেখ্য মাস খানেক আগেই তিন তালাক বিল সংসদের দুই কক্ষে পাস হয়ে গিয়েছে। মোদি সরাকরের এই যুগান্তকারী সিদ্ধান্তে খুশি তালাকপ্রাপ্ত মুসলিম মহিলারা। সারা ভারত মসলিম ল বোর্ডও এই বিলের বিরোধিতা করেছে। তাদের বক্তব্য, এই নতুন বিল ভারের বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্যের বৈশিষ্টকে বিনষ্ট করছে। একই কথা বলেছেন হায়দ্রাবাদের সাংসদ আসাদউদ্দিন ওয়েইসি। তাঁর মতে তিন তালাক পদ্ধতি ভুল তবে তা নিষিদ্ধ ঘোষণার আগে আইনে পরিণত করার আগে মুসলিম সমাজের কর্তাব্যক্তিদের সঙ্গে একবার আলোচনা করা উচিত ছিল।