দেশের ব্যাংকিং পরিষেবা নিরাপদ ও স্থীতিশীল গুজবে কান দেবেন না, আতঙ্কিত গ্রাহকদের ভরসা ফেরাতে রিজার্ভ ব্যাংকের বিজ্ঞপ্তি
রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া (Photo Credit: PTI)

মুম্বই, ১ অক্টোবর: দেশের ব্যাংকিং ব্যবস্থা একেবারে বিপর্যয়ের মুখে এসে দাঁড়িয়েছে। যেকোনও সময় বন্ধ হয়ে যেতে পারে অনেকগুলি ব্যাংক। এরমধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক যেমন রয়েছে, তেমনই বেসরকারি ব্যাংকও রয়েছে। এই খবর রাষ্ট্র হতেই আমানতকারীদের ঘুম উড়েছে। সবাই আতঙ্কে দিশেহারা। অনেকেই ভাবছেন তিনি যে ব্যাংকের গ্রাহক সেই অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নিয়ে ক্লোজ করে দেওয়ার কথা ভবাছেন। এমন পরিস্থিতি আঁচ করে ইতিমধ্যেই আসরে নেমেছে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া এক বিবৃতিতে আরবিআই-এর তরফে জানানো হয়েছে, ভারতীয় ব্যাংকিং ব্যবস্থা নিরাপদ ও স্থীতিশীল। গ্রাহকদের ভয়ের কিছু নেই, এটি গুজব।

বিবৃতিতে আরবিআই জানিয়েছে, সমবায় ব্যাংকগুলি নিয়ে যে গুজব বাজারে রটেছে তাতে ভয়ের কিছু নেই। ওই তথ্যের মধ্যে কোনও সারবত্তা বা সত্যতা নেই। ভারতীয় ব্যাংকিং পরিষেবা একেবারে নিরাপদ ও স্থীতিশীল রয়েছে। এনিয়ে সাধারণ গ্রাহককে কোনওরকম চিন্তিত হতে হবে না। তাই গুজবে কান দিয়ে অযথা আতঙ্কিত হবেন না। গত সোমবারই জানা গিয়েছিল, পাঞ্জাব মহারাষ্ট্র সমবায় ব্যাংকের ঋণ প্রক্রিয়াতে বেশ কিছু গলদ রয়েছে, যা আরবিআই-এর চোখে ধরা পড়েছে। তাই এই ব্যাংকের পরিষেবা আপাতত বন্ধ থাকবে। পিএমসি ব্যাংকের কাজে দৃশ্যতই অসন্তুষ্ট রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া, এর প্রশাসক এমডি জয় টমাসকে সাসপেন্ড করা হয়। সেখানে নিয়ে আসা হয় জয় ভগবান ভোরিয়াকে। অভিযোগ, জয় টমাসের অধীনে রিয়েল এস্টেট সংস্থাত এইচডিআইএল পিএমসি ব্যাংক থেকে ৬ হাজার ৫০০ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছে। তারপরেই সংস্থাটি নিজেদের দেউলিয়া ঘোষণা করায় বিপাকে পড়েছে পিএমসি ব্যাংক। আরও পড়ুন-PMC Bank Crisis: আরবিআই-এর নয়া নির্দেশিকা, পিএমসি ব্যাংকের গ্রাহকরা একসঙ্গে ১০ হাজার টাকা তুলতে পারবেন

তাই গত ১৫ দিন ধরেই পিএমসি-র (PMC) গ্রাহকরা দোলাচালে রয়েছেন। প্রথমেই পরিস্থিতি বিবেচনা করে গ্রাহকদের বলা হয় ছমাসের জন্য ব্যাংক বন্ধ থাকবে। এই ছমাসে মাত্র হাজার টাকা গ্রাহকরা একবারে তুলতে পারবেন। এরপরেই আন্দোলনে নামেন ক্ষুব্ধ গ্রাহকরা। বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ শুরু হলে, প্রমাদ গোনে আরবিআই (RBI)। ফের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় ১০ হাজার টাকা গ্রাহকরা ছমাসে তুলতে পারবেন। এদিকে আগেই গ্রাহকদের আশ্বস্ত করে জয় টমাস (MD Joy Thomas) বলেন, তাঁদের টাকা নিরাপদে থাকবে। তবে জয় টমাসের উপরে বিরক্ত আরপিআই তাঁকে পত্রপাঠ বিদায় করে।