Mahathir Mohamad: ‘লাখো ফরাসী জনতাকে খুনের অধিকার মুসলিমদের রয়েছে’, বিতর্কিত টুইটের জেরে নেটিজেনদের নিশানায় মহাথির মহম্মদ
মহাথির মহম্মদ (Photo Credits: Instagram)

কুয়ালালামপুর, ৩০ অক্টোবর: ফ্রান্সের জঙ্গিহানা নিয়ে টুইটারে মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন মালয়েশিয়ার প্রাক্তন প্রধনমন্ত্রী মহাথির মহম্মদ (Mahathir Mohamad)। তিনি বলেন, অতীতের অরাজকতার জন্য লাখো ফরাসীকে হত্যা করার অধিকার মুসলিমদের আছে।পরে টুইটারের তরফে এই টুইটটি সরিয়ে ফেলা হয়। এদিকে হিংসাকে প্রশ্রয় দেওয়ার কারণে মালয়েশিয়ান প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতির নিন্দায় মুখর হয়েছে নেটিজেনরা। প্রায় টুইটের সিরিজ প্রকাশ করেছেন তিনি। প্রথম টুইটটি ছিল, ‘শ্রদ্ধা’। এক ফরাসী শিক্ষক তাঁর ছাত্রদের হজরত মহম্মদ (সা.) একটি কার্টুন দেখান। এই বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয়েছে আলোড়ন। এই প্রসঙ্গে মহাথির জানান, ফরাসীদের উচিত অন্যদের সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করা।

তিনি বলেন, “বছর ১৮-র এক চেচেন কিশোর এক ফরাসী শিক্ষকের গলা কেটেছে। ওই শিক্ষক নিজেই কিশোরকে ডেকে মহম্মদ (সা.) এর কার্টুন দেখানোর বন্দোবস্ত করেছিলেন। ওই শিক্ষক বাকস্বাধীনতাকে প্রাধান্য দিতে চেয়েছেন।” এদিকে এনিয়ে মহাথির মহম্মদের টুইটে অতিশয় বিরক্ত সেলেবরা। এই তালিকায় রয়েছেন গায়িকা সোনা মহাপাত্র, সাংবাদিক শিব আরুর। জয়েস কারাম, এঁরা প্রত্যেকেই প্রাক্তন মালয়েশিয়ান প্রাধানমন্ত্রীর টুইটের কড়া সমালোচনা করেছেন। অনেকে তো আবার মহাথিরের টুইটার অ্য়াকাউন্ট ব্লকেরও পরামর্শ দিয়েছেন। আরও পড়ুন-Pakistan Blast: পেশোয়ারের মাদ্রাসায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে ৪ শিশু-সহ মৃত ৭, আহত ৭০

গত বৃহস্পতিবার পর পর দুটি সন্ত্রাসী হানা হয় ফ্রান্সে। সাত সকালে নোতরদাম বাসিলিকায় ছুরিকাঘাতে প্রাণ যায় ৩ জনের। প্রথম হামলাটি ঘটে স্থানীয় সময় সকাল নটায়। যখন সবে দিনের কাজ শুরু হয়েছে, মানুষ পথে নামতে শুরু করেছে। অভিযুক্তকে ইতিমধ্যেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মৃতদের একজনের মাথা সম্পূর্ণভাবে ধর থেকে আলাদা হয়ে গেছে। দ্বিতীয় হামলাটি ঘটে ফ্রান্সের অভিগনন শহরে। সেখানে পুলিশের উপরে হামলা চালায় একজন। এরপর পুলিশের গুলিতেই হামলাকারীর মৃত্যু হয়েছে। ফ্রাসী প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল ম্যাক্রন ঠিক একদিন আগেই ইসলাম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। ঠিক পরের দিন থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে এইসব অপ্রীতিকর ঘটনা। মূলত হজরত মহম্মদ (সা.) এর কার্টুন প্রদর্শনকারী শিক্ষকের পক্ষেই কথা বলেছিলেন তিনি। তবে সেই শিক্ষকেরই শিরঃচ্ছেদ করা হয়েছে।