COVID-19 Vaccine Trial: অসুস্থ স্বেচ্ছাসেবক, কোভিড-ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে সাময়িক বিরতি অ্যাস্ট্রাজেনেকার
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: IANS)

নিউইয়র্ক, ৯ সেপ্টেম্বর: মাঝপথেই কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের প্ররীক্ষামূলক প্রয়োগ বন্ধ করেদিল অ্যাস্ট্রাজেনেকা (AstraZeneca COVID-19 Vaccine)। জানা গিয়েছে, ট্রায়ালের পরে কোনও স্বেচ্ছাসেবক অজানা অসুস্থতায় ভুগতে শুরু করায় আপাতত বন্ধ থাকছে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ। এরবেশি কোনও কিছু প্রকাশ্যে আনেনি অ্যাস্ট্রাজেনেকা। ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ য়ে বন্দ হচ্ছে সেখবর প্রথম দেয় স্বাস্থ্য সম্পর্কিত খবরের সাইট STAT, জানানো হয় ভ্যাকসিনের এই সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ইংল্যান্ডে আগেই শুরু হয়েছে। এরপরেই অ্যাস্ট্রাজেনেকার তরফে সংস্থার মুখপাত্র ভ্যাকসিনের আমেরিকা ও অন্যান্য দেশে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ বন্ধ রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ভ্যাকসিনের বড়সড় পরীক্ষামূলক প্রয়োগের জন্য গতমাসের শেষের দিকে অ্যাস্ট্রাজেনেকা মার্কিন মুলুকে ৩০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করে। অক্সোফোর্ডের তৈরি এই ভ্যাকসিন ইতিমদ্যেই ব্রিটেনের হাজার জনের উপরে প্রয়োগ করা হয়েছে। আরও পড়ুন-Rhea Chakraborty: জামিনের আবেদন খারিজ, ১৪ দিনের জন্য বিচার বিভাগীয় হেফাজতে রিয়া চক্রবর্তী

এছাড়াও ব্রাজিল ও দক্ষিণ আফ্রিকাতে ছোটখাটো স্তরে এই করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ হয়েছে। মার্কিন মুলুকে আরও দুটি ভ্যাকসিনের ট্রায়াল চলছে। একটির প্রস্তুতকারক সংস্থা মোডের্না আইএনসি। আর অন্যটির যৌথ প্রস্তুতকারক সংস্থা Pfizer এবং জার্মানির BioNTech। এই দুই ভ্যাকসিনই অ্যাস্ট্রাজেনেকার থেকে আলাদা। এমনকী, ইতিমধ্যেই প্রয়োজনীয় স্বেচ্ছাসেবীর দুই তৃতীয়াংশের শরীরে ভ্যাকসিনের পীরক্ষামূলক প্রয়োগ হয়েও গিয়েছে। বড়সড় চিকিৎসা সংক্রান্ত পরীক্ষার ক্ষেত্রে অস্থায়ী বিরতি অস্বাভাবিক কিছু নয়। এবং ভ্যাকসিনের নিরাপত্তার জন্য এসব ক্ষেত্রে কোনও জরুরি ও অযাচিত পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া শুরু হলে তা বন্ধ রাখা বাধ্যতামূলক। এই প্রসহ্গে অ্যাস্ট্রাজেনেকার বক্তব্য এই সম্ভাব্য সমস্যা হয়তো কাকতালিয়। এমন পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ক্ষেত্রে অনেক সময় স্বেচ্ছাসেবীদের একাংশ অসুস্থ হতে পারে। কীকারণে এই অসুস্থতা তা দ্রুত খুঁজে বের করার চেষ্টা হচ্ছে।

অন্যদিকে এবার ভারতেও শুরু হবে রাশিয়ার করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন স্পুটনিক ভি-এর (Sputnik V) পরীক্ষামূলক প্রয়োগ। চলতি মাসে যাতে এই পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হতে পারে তানিয়ে ইতিমধ্যেই ভারতের সঙ্গে কথাবার্তা শুরু করেছে রাশিয়া। মস্কোর এক সংবাদ মাধ্যমে একথাই জানিয়েছেন সেদেশের সরকারি কর্তাব্যক্তিরা। স্পুটনিক ভি-এর চূড়ান্ত পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে ভারত ছাড়াও আরও চারটি দেশকে নির্বাচিত করেছে রাশিয়া। পরীক্ষামূলক প্রয়োগে সফলতা এলে ভ্যাকসিনের বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়বে আশা করা যায়। কেননা ইউরোপ ও আমেরিকা মহাদেশের তরফে রাশিয়ার স্পুটনিক ভি করোনা ভ্যাকসিনের সফলতা নিয়ে আগেই সন্দেহ প্রকাশ করা হয়েছে। ভারত ছাড়াও তালিকায় কারা আর চারটি দেশ হল, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমীরশাহি, ফিলিপিন্স ও ব্রাজিল।