Blast At Plastic Factory In Malda: সুজাপুরে কারখানা বিস্ফোরণকাণ্ডে মৃত বেড়ে ৬, মৃত্যু কারখানা মালিকের
সুজাপুরে প্লাস্টিক কারখানায় বিস্ফোরণ (Photo: Twitter)

কলকাতা, ২০ নভেম্বর: সুজাপুরে কারখানা বিস্ফোরণকাণ্ডে সন্ধেয় আরও একজন প্রাণ হারান। মৃতের নাম আবদুল সাহেদ। বয়স ৫১ বছর। সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, কারখানার মালিক ছিলেন আবদুল সাহেদ। কলকাতায় নিয়ে যাওয়ার পথে মৃত্যু হয় আবদুল সাহেদের। এনিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৬। আহত বহু।

বৃহস্পতিবার মালদার (Malda district) কালিয়াচক থানার সুজাপুরে (Sujapur) প্লাস্টিক কারখানায় (Plastic Factory) বিস্ফোরণ ঘটে। ৫ শ্রমিকের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও ৩ জন। পরে আরও একজনের মৃত্যু হয়। প্লাস্টিক কারখানার মেশিন ব্লাস্ট করে বলে প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হয়। ঘটনাস্থানে পৌঁছয় পুলিশ। আহতদের মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। আরও পড়ুন, হাফিজ সইদকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিল পাকিস্তানের সন্ত্রাসবিরোধী আদালত

রাজ্যের মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, ঘটনাস্থানে যাচ্ছেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম এছাড়াও মৃতদের নিকটাত্মীয়দের ২ লাখ টাকা করে আর্থিক সাহায্য ও আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলেও তিনি জানান। বিস্ফোরণ প্রসঙ্গে রাজ্যকে নিশানা করে টুইট করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখর (Jagdeep Dhankhar)। টুইটে তিনি লেখেন, “মালদা জেলার সুজাপুর এলাকায় বিস্ফোরণে নিহতের ঘটনায় বিস্মিত। এসপির মতে পাঁচজন নিহত ও পাঁচজন আহত হয়েছেন। এবার তো বোমা তৈরির কারখানাগুলি বন্ধ করুন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একপেশে তদন্ত না করে পেশাদার নিরপেক্ষ তদন্ত নিশ্চিত করার জন্য পদক্ষেপ করুন।”

এরপরই রাজ্য সরকার বিবৃতি দিয়ে জানান সুজাপুরে বিস্ফোরণের সঙ্গে বোমার সম্পর্ক নেই। রাজ্য় স্বরাষ্ট্র দপ্তর (West Bengal Home Department) টুইট করে জানিয়েছে, মালদার সুজাপুর প্লাস্টিক কারখানার দুর্ঘটনাটি উৎপাদন প্রক্রিয়া সম্পর্কিত বিষয়গুলির সঙ্গে সম্পর্কিত। এর সঙ্গে অবৈধ বোমা তৈরির যোগের সম্পর্ক নেই। কিছু মহল কর্তৃক দায়িত্বহীনভাবে কথা বলা হচ্ছে।"