Tokyo Olympics: সেনাবাহিনীর ডাক্তার-নার্সদের সাহায্যেই অলিম্পিক আয়োজন করতে চায় জাপান
অলিম্পিক ২০২০ (Photo Credits: Wikimedia Commons)

টোকিও, ২৬মে: অলিম্পিক (Tokyo Olympics) আয়োজন করতে মরিয়া জাপান (Japan)। সম্প্রতি এক সমীক্ষা/ প্রকাশ জাপানের অধিকাংশ মানুষই চান না করোনার এই কঠিন সময়ে অলিম্পিকের মত মেগা ইভেন্ট দেশে আয়োজন হোক। কিন্তু জাপান সরকার ও আয়োজকরা একেবারে বদ্ধপরিকর। কারণ টোকিওতে অলিম্পিক না হলে জাপানের আর্থিক ক্ষতি আকাশছোঁয়া হবে। গত বছর করোনার কারণে পিছিয়ে নজিরিবিহীনভাবে এক বছর বাদে আয়োজিত হওয়ার কথা 'টোকিও অলিম্পিক ২০২১'। আগামী ২৩ জুলাই থেকে শুরু হওয়ার কথা টোকিও অলিম্পিকের। কিন্তু জাপানে করোনার যা ভয়াবহ পরিস্থিতি তাতে অনেকেই চাইছেন না সেখানে গেমসের আয়োজন হোক। আরও পড়ুন: Viral: কোভিড বিধি এড়াতে মাঝ আকাশে বিয়ে করে ভাইরাল দম্পতি, দেখুন ভিডিও 

বিদেশী অ্যাথলিটরা এলে দেশে করোনা পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হতে পারে আশঙ্কা জাপানবাসীর। আয়োজকরা অবশ্য বলছেন, অলিম্পিকের জন্য আসা সব ক্রীড়াবিদ-কর্তৃপক্ষ-সাংবাদিকদের টিকা দিয়ে সুরক্ষিত করা হবে। টোকিও অলিম্পিক আয়োজক কমিটির দাবি ৮০ শতাংশ অ্যাথলিটরা টিকা নিয়ে নিয়েছেন। বাকিদেরও দিয়ে দেওয়া হবে গেমস শুরুর আগে।

এদিকে, করোনায় সুরক্ষিত থাকার জন্য দেশের সেনাবাহিনীর ২৩০ জন ডাক্তার এবং ৩১০জন নার্সদের কাজে লাগানো হবে। জৈব সুরক্ষা বলয়ের পাশাপাশি করোনা বিধির সব কিছু আধুনিক পদ্ধতিতে মানার কাজ শুরু হয়েছে। তবে আইওসি নিশ্চয়তা দিলেও, এখনও নিশ্চিত নয় গেমস হবে কি না। কারণ জাপান জুড়ে গেমস বিরোধী হাওয়া ক্রমশ তীব্র হচ্ছে। দেশবাসীর একটা বড় অংশের বিরোধিতা, করোনা মহামারীর ভ্রুকুটির মধ্যে সত্যিই কি অলিম্পিকের মত মেগা ইভেন্টের আয়োজন সম্ভব?