টেলিকম সেক্টরে টারিফ বৃদ্ধি নিয়ে ট্রাইয়ের সিদ্ধান্তে নাক গলাবে না সরকার, রবি শংকর প্রসাদ
কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ(Photo Credit: File Photo)

দিল্লি, ৫ সেপ্টেম্বর: দেশের অর্থনৈতিক মন্দায় কোনও শিল্পক্ষেত্রই ভাল নেই। সবাই বিপদের মধ্যেই আছে। এরমধ্যে টেলিকম সেক্টরে টারিফ বাড়ায় ব্যবসায় ক্ষতির সম্ভাবনা প্রবল। পরিস্থিতি বুঝে টেলিকম সেক্টরের সিদ্ধান্তের মধ্যে টেলিকম মন্ত্রকের হস্তক্ষেপের দাবি করেছিল ভোডাফোন ও আইডিয়ার মতো মোবাইল নেটওয়ার্ক পরিষেবা সংস্থা। তবে ভোডাফোন ও আইডিয়াকে (Vodafone-Idea) তাদের দাবি শুনে পত্রপাঠ নাকচ করে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রী রবি শংকর প্রসাদ। তাঁর মতে টেলিকম সেক্টরের টারিফ বৃদ্ধির বিষয়টি ট্রাইয়ের (TRAI) নিয়ন্ত্রণে থাকে, মন্ত্রকের নয়। তিনি ট্রাইয়ের ব্যবসা বৃদ্ধির প্রসঙ্গে নাক গলাবেন না, সাফ জানিয়েছেন। এই মন্দার বাজারে যদি টারিফ বাড়িয়ে ব্যবসায় কিছু লাভ করে টেলিকম সেক্টর তবে তাতে দোষের কিছু দেখছেন না মন্ত্রী রবি শংকর প্রসাদ (Ravi Shankar Prasad)।

এই প্রসঙ্গে রবি শংকর প্রসাদ বলেছেন, টারিফ বাড়া কমার বিষয়ে টেলিকম সেক্টরই শেষকথা বলে। ট্রাইয়ের উপরে এ বিষয়ে কোনও কথাই বলবে না টেলিকম মন্ত্রক। তাছাড়া এই টারিফ বৃদ্ধির বিষয়টি দেখভালের জন্য ক্রেতা ও পরিষেবা সংস্থা রয়েছে। এটি তাদের ব্যক্তিগত বিষয়, এর মধ্যে সরকার কোনও ভূমিকা রাখে না। আরও পড়ুন-INX Media Case: পি চিদম্বরমের আগাম জামিনের আবেদন খারিজ, প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকে ED-র গ্রেফতারে আর কোন বাধা রইল না

জানা গিয়েছে, এদিকে এনিয়ে ইতিমধ্যেই টেলিকম মন্ত্রী রবি শংকর প্রসাদের সঙ্গে এক প্রস্থ সৌজন্য সাক্ষাৎ সেরেছেন আদিত্য বিড়লা গ্রুপের চেয়ারম্যান কুমার মঙ্গলম বিড়লা। সঙ্গে ছিলেন ভোডাফোনের সিইও রবীন্দ্র থাকর। এই বৈঠকে সাধারণত পরিষেবা সংস্থার ঘাড়ে চেপে বসা পাহাড় প্রমাণ দেনার বোঝা ও আয়ের সীমা রেখার মন্দাগতি নিয়েই সুদীর্ঘ আলোচনা হয়েছে। অন্যান্য টেলিকম সংস্থার সঙ্গে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হলে যে সংস্থার অভ্যন্তরীণ দূরবস্থার পর্যালোচনা জরুরি তানিয়েটেলিকম মন্ত্রীর সঙ্গে সংস্থার সিইও-র বিশদে কথা হয়েছে।