Mission Gaganyaan: এগরোল থেকে পোলাও, এবার মহাকাশে গিয়ে মোগলাই খানার স্বাদ নেবেন গগনযানের নভশ্চররা; কেন জানেন?
গগনযানের সঙ্গে যাবে এই খাবার (Photo Credit: ANI)

নতুন দিল্লি, ৭ জানুয়ারি: ভারতীয়রা ভেগান এটা ভাবা শুধু কষ্টকর নয়, শাস্তিদায়কও বটে। এমন চারদিকে যদি লোভনীয় মোগলাই, চাইনিজ খাবার সাজানো থাকে তাহলে বাঙালি আমেরিকা হোক বা লখনউ, একেবারে পাত পেড়ে খাবে। তেমনই হিমালয়ে গিয়ে ডিমের ওমলেট যেন স্বর্গসুখের নদর্শন হিসেবে ধরা হবে। তাহলে মহাকাশই বা বাদ যায় কেন। এতদিন যা হয়ে গেছে যাক। এবার কিন্তু মহাকাশচারীরাও মোগলাই খানার স্বাদ নিতে পারবেন মহাশূন্যে। মোগলাই থেকে দক্ষিণী—খাওয়াদাওয়া হবে ভরপুর। গবেষণা চলবে, সমানতালে হবে পেটপুজোও। পৃথিবীর মাটি ছাড়বার আগেই গগনযানে প্যাকেটভর্তি এগরোল (egg rolls), ইডলি সাম্বার, উপমা, পোলাও (veg pulao) ভরে দেবেন ইসরোর বিজ্ঞানীরা। পাউচে যাবে জল ও ফ্রুট জুস। হ্যাঁ, গগনযানে থাকছে এসবই সুযোগসুবিধা।

ইসরো জানিয়েছে, টেকনিক্যাল ব্যাপার সব ঠিক থাকলে এবং নভশ্চরদের প্রশিক্ষণ পর্ব মিটে গেলে, গগনযান মহাকাশে উড়ে যাবে ২০২২ সালের আগেই। শূন্য মাধ্যাকর্ষণের উপযোগী পোশাক এবং আনুষঙ্গিক উপাদান পাঠানো হবে নভশ্চরদের সঙ্গে। খাবারেও থাকবে বৈচিত্র্য। বিশেষ রকমের ফুড প্যাকেটে প্রায় ৩০ রকমের ডিশ পাঠানো হবে গগনযানে। এই খাবারের দায়িত্বে রয়েছে মাইসোরের ডিফেন্স ফুড রিসার্চ ল্যাবোরেটরি। বায়ুসেনার যে চার অফিসারকে গগনযানে চাপিয়ে পাঠানো হচ্ছে মহাকাশে, তাঁদের আপ্যায়ণে কোনও ফাঁকই রাখতে চায় না ইসরো। ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে মেনুতে কী কী থাকতে পারে তার একটা সম্ভাব্য তালিকা। এবারের মিশন গগনযানের সেরা আকর্ষণ হতে চলেছে এগরোল। ভেজরোলও থাকবে মেনুতে। ভেজিটেরিয়ানদের জন্য থাকবে মুগ ডালের হালুয়া, ইডলি, সাম্বার, উপমা। একেবারে সাড়ম্বর আয়োজন যাকে বলে, খাবারের এলাহি আয়োজন হবে, আর পোলাও-মাংস মেনুতে থাকবে না, তাতো হয় না। পাউচে যাবে জল ও ফলের রস। শুধু প্যাকেটবন্দি হয়ে খাবারই নয় খাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় স্টেনলেস স্টিলের বাসন, বর্জ্যফেলার বিশেষ যন্ত্র ও খাবার গরমের ব্যবস্থাও থাকবে গগনযানে। আরও পড়ুন-Nirbhaya Case: অবশেষে সাজা, ২২ জানুয়ারি সকাল সাতটায় ফাঁসির দড়িতে নির্ভয়ার ৪ ধর্ষক; রায় দিল পাতিয়ালা হাউস কোর্ট

উল্লেখ্য, নতুন বছরে একগুচ্ছ নতুন অভিযানের কথা ঘোষণা করে দিয়েছেন ইসরো চেয়ারম্যান কে শিবন। চলতি বছরে ইসরোর সবচেয়ে মিশন ‘আদিত্য অভিযান’। সূর্যের দেশে পাড়ি দেবে ইসরোর মহাকাশযান আদিত্য এল-১। তৃতীয় চন্দ্রযাত্রাও এ বছরেই। চন্দ্রযান ২-এর খামতি ঢাকবে চন্দ্রযান ৩। বছরের শেষ থেকে গগনযান নিয়ে হইচই আরও বাড়বে। নভশ্চরদের বাছাইপর্বও শেষ। বায়ুসেনার বিভিন্ন বিভাগ থেকে বেছে নেওয়া হয়েছে চারজন অফিসারকে।