CAB To Be Tabled In Rajya Sabha: আগামীকাল দুপুর ২ টোয় রাজ্যসভায় পেশ হবে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ২০১৯
রাজ্যসভা (Photo Credits: ANI)

নতুন দিল্লি, ১০ ডিসেম্বর: গতকাল মধ্যরাতে লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ২০১৯  (Citizenship Amendment Bill 2019) পাস হয়। বিলটি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) লোকসভায় (Lok Sabha) পেশ করেছিলেন। পরে রাতে এটি নাটকীয়ভাবে পাস হয়। আগামীকাল বুধবার এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি রাজ্যসভায় (Rajya Sabha) পেশ করা হবে। এই বিল লোকসভায় পেশ হওয়ার পর নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের তরফে ৩১১টি ভোট পড়েছে। বিরোধিতা করে পড়েছে মাত্র ৮০টি ভোট। তাই বিল পাস হওয়ার পথে কোনও বাধা সৃষ্টি হয়নি। এদিকে বিল পাস হতে না হতেই বিলের কপি ছিঁড়ে লোকসভায় প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন মিম নেতা আসাদউদ্দিন ওয়েসি।

রাজ্যসভায় বিলটি পাস হতে হলে ২৪৫ জন সদস্যের মধ্যে ১২৩ জন সাংসদের সমর্থনের প্রয়োজন। এখানেই হবে আসল লড়াই। পিটিআইয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী, বিজেপি এআইডিএমকের ১১ জন সদস্যদের সঙ্গে কথাবার্তা বলছে। বিজেডির সাত সদস্য এবং ওয়াইএসআরসিপ-র ২ সদস্য এবং টিডিপির ২ সদস্যের সঙ্গে আলোচনা করছে। এছাড়া জেডিইউ, সাদ, এলজিপির মত দলগুলির সমর্থন তো তাদের রয়েইছে। সুতরাং বিল পাস করতে খুব বেগ পাওয়ার আভাস এখনও অব্দি নেই। আরও পড়ুন,  ভারতে বসবাসকারী ১ লক্ষ তামিল শ্রীলঙ্কানকে নাগরিকত্ব বিলের অধীনে আনা হোক, কেন্দ্রের কাছে দরবার করলেন শ্রী শ্রী রবিশংকর

আগে এদেশের নাগরিকত্ব পেতে গেলে প্রায় ১১ বছর বসবাস করতে হত। প্রায় ছ' দশক পুরনো এই বিলটিতে সংশোধনী এনে পাকিস্তান, আফগানিস্তান, বাংলাদেশ থেকে আসা হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, পার্সি, ও খ্রিস্টানরা এদেশের নাগরিকত্ব পাবেন। এই বিলটি অনুযায়ী এদেশে ৫ বছর বসবাস করতে হবে। দেশজুড়েই হবে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। অন্যদিকে, এই বিলটি নিয়ে তীব্র বিক্ষোভ চলছে উত্তরপূর্বের রাজ্যগুলিতে। সমর্থন জানায়নি কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস ও সিপিএমও।