Japan Bans Entry From All Countries: করোনার নতুন প্রজাতির কাঁটা, জানুয়ারির শেষ পর্যন্ত জাপানে নিষিদ্ধ বিদেশিদের প্রবেশ
বিমানবন্দরে করোনাভাইরাস স্ক্যানার (Photo Credit: Twitter)

টোকিও, ২৭ ডিসেম্বর: করোনাভাইরাসের নতুন প্রজাতি (COVID-19 Strain) ঢুকে পড়েছে জাপানে। ইতিমধ্যেই পাঁচ জনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তারপরই বহিরাগতদের জন্য দেশের সীমান্ত বন্ধ করে দিল জাপান সরকার। যতক্ষণ না করোনার নতুন প্রজাতির সংক্রমণ কমছে ততক্ষণ দেশের সমস্ত বিমানবন্দরে আসা যাত্রীদের উপরে কড়া নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে। আগামী কাল সোমবার থেকে এই নিষেধাজ্ঞা জারি হচ্ছে। দেশের শীর্ষকর্তারা স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে জানুয়ারির শেষ পর্যন্ত। এই নিষেধাজ্ঞা থেকে রেহাই পাবেন শুধু জাপানিজরাই যাঁরা এই মুহূর্তে দেশের বাইরে রয়েছেন। এবং এই একমাসের মধ্যে দেশে ফিরতে চান। গত শুক্রবার দেশের স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে, করোনার নতুন প্রজাতির দ্বারা সংক্রামিত মোট পাঁচজনকে পাওয়া গেছে। আরও পড়ুন-Visva Bharati University Land Controversy:অমর্ত্য সেনের সমর্থনে পথে বাংলার বিশিষ্টরা, কাল বাংলা অ্যাকাডেমির সামনে প্রতিবাদ সভা

এই পাঁচজনের ২ জন ওসাকাতে থাকেন। বাকি তিনজন টোকিওয়। এই পাঁচজন সম্প্রতি ইংল্যান্ড থেকে দেশে ফিরেছেন। যেখানে করোনার নতুন প্রজাতির সংক্রমণ হু হু করে ছড়িয়েছে। এই মুহর্তে মহামারীর হটস্পট ইংল্যান্ড। জাপানে আচমকাই দৈনিক সংক্রমণ বেড়ে গিয়েছে। যেদিন বিমানবন্দর সংক্রান্ত নিষেধাজ্ঞা জারি করছে জাপান, সেদিনই দেশের দৈনিক সংক্রমণ সংখ্যার নিরিখে পুরোনো সমস্ত রেকর্ডকে ছাপিয়ে গিয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সেদেশে নতুন সংক্রামিত ৩ হাজার ৮৮১ জন। শুধু রাজধানী টোকিওতেই ৯০০-র বেশি নতুন আক্রান্তের সন্ধান মিলেছে। এই নিয়ে চারদিন হল জাপানে দৈনিক সংক্রমণ ৩ হাজার ছাড়ালো। বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা করোনার নতুন প্রজাতি ইতিমধ্যেই বহুজনকে সংক্রামিত করেছে। সেই কারণেই হয়তো দৈনিক সংক্রমণ এভাবে ঊর্ধ্বমুখী। ইংল্যান্ডের সঙ্গে যোগসূত্রে থাকা এই করোনার নতুন প্রজাতির সংক্রমণের ক্ষমতা ৭০ গুণ বেশি।