Mamata Banerjee Writes To Nobel laureate Amartya Sen: জমি বিতর্কে পাশে দাঁড়িয়ে অমর্ত্য সেনকে চিঠি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অমর্ত্য সেন (Photo: PTI and FB)

কলকাতা, ২৫ ডিসেম্বর: বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের (Vishva Bahrati) জমি বিতর্কে নোবেলজয়ী অমর্ত্য সেনের (Nobel laureate Amartya Sen) পাশে দাঁড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অমর্ত্য সেনকে আজ চিঠি লিখেছেন তিনি। চিঠিতে অমর্ত্য সেনকে অমর্ত্যদা সম্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী লিখেছেন বলেছেন, "বিশ্বভারতীর কিছু নব্য হানাদার আপনার পারিবারিক সম্পত্তি সম্পর্কে আশ্চর্যজনক এবং ভিত্তিহীন অভিযোগ উত্থাপন শুরু করেছে ... সংখাগুরুর গোঁড়ামির বিরুদ্ধে আপনার লড়াইয়ে আমি আপনার সঙ্গে আছি।"

অমর্ত্য সেনের শান্তিনিকেতনের বাড়ি ‘প্রতীচী’র জমির খানিকটা অংশ বিশ্বভারতীর। এমনই অভিযোগ তুলে সম্প্রতি বিতর্কে জড়িয়েছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। অভিযোগ উঠতেই ক্ষুব্ধ অমর্ত্য সেন নাকি বিশ্বভারতীর উপাচার্য চিঠি লিখে নিজের বক্তব্য জানিয়েছেন। জমি সংক্রান্ত বিতর্ক প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, “অমর্ত্যদা কে আমি ও সবাই সম্মান করে। সারা বিশ্ব সম্মান করে। বাংলার মানুষ তাঁকে নিয়ে গৌরব বোধ করেন। আপনারা কি বিশ্বাস করেন, অমর্ত্য সেনের এমন কোনও দিনও আসবে, যে তাঁকে শান্তিনিকেতনে জমি দখল করতে হবে। আমি যতদূর জানি ওনার পরিবার ওখানে ৭০-৮০ বছর আছে এখানে। অমর্ত্য সেন আদর্শগত ভাবে বিজেপির বিরুদ্ধে বলে তাঁর বিরুদ্ধে যা ইচ্ছা তাই বলে যাবে, এটা বাংলার মানুষ সহ্য করবে না। এটা বাংলার অসম্মান। আমি বাংলার হয়ে ক্ষমা চাইছি। ক্ষমা করবেন অমর্ত্যদা, আপনাদের মতো মানুষকেও এরা সম্মান দিতে জানেন না। আমি দুঃখিত।"

মমতা বলেন, "আমাকে আঘাত করতে করতে এ বার বাংলার মনীষীদেরও আঘাত করতে শুরু করেছে। সেটা সহ্য করব না। আজকে যারা আছে, তারা স্থায়ী নয়। তাদের দিন গোনা শুরু হয়ে গেছে। মনে করছে মমতাকে পেয়ে গেছি, সহজ-সরল ঘরের মেয়ে। তাকে গালাগালি দেয় কারণ, সে প্রতিবাদ করে না। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আমিই জিতব। অমর্ত্য সেনকে যারা অপমান করেছে তাদের ক্ষমতা চাইতে হবে। ক্ষমা না চাইলে বাংলার বুদ্ধিজীবীদের আবেদন করব অমর্ত্যদার পাশে দাঁড়িয়ে তাঁকে অসস্মানের হাত থেকে বাঁচান। যে যেমন করে পারেন প্রতিবাদ করুন।"