Garfa Police Station: করোনা-সন্দেহে মৃত্যু কনস্টেবলের, ধুন্ধুমার গড়ফা থানা
কলকাতা পুলিশ। (Photo:PTI)

কলকাতা, ২৫ মে: শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় রবিবার এমআর বাঙুর হাসপাতালে (M R Bangur Hospital) ভর্তি হয়েছিলেন গড়ফা থানার (Garfa Police Station) এক কনস্টেবল। সোমবারই তাঁর মৃত্যু হয়। এরপরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন কলকাতা পুলিশ কর্মীরা। করোনা-সন্দেহে বছর ৪৭-র পরিমল পালের মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয় বিক্ষোভ। আরও পড়ুন: Kolkata: আম্ফানের প্রভাবে ছেঁড়া তার সারাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু ইলেক্ট্রিশিয়ানের 

পুলিশ সূত্রে খবর, পরিমল পালের মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই শুরু হয় ভাঙচুর। বিক্ষোভে ফেটে পড়েন গড়ফা থানার পুলিশ কর্মীরা। অভিযোগ, সঠিক চিকিৎসা হয়নি পরিমল পালের। গত ১ সপ্তাহ ধরেই গুরুতর অসুস্থ ছিলেন তিনি। অসুস্থতার মধ্যেও তিনি ডিউটি করতেন। এরপর শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হলে বাঙুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। সোমবার তাঁর মৃত্যু হয়। এমআর বাঙুরের সিভিয়ার অ্যাকিউট রেসপিরেটরি ইলনেস (সারি) ওয়ার্ডে ভর্তি ছিলেন ওই কনস্টেবল।

উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে চিকিৎসার গাফিলতির অভিযোগ তোলেন বিক্ষোভরত পুলিশ কর্মীরা। এমনকী তাঁদের সুরক্ষা এবং স্বাস্থ্যের বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ নিচ্ছে না উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ। বিক্ষোভরত পুলিশ কর্মীরা থানার ভিতর চেয়ার, টেবিল এবং আলমারি ভাঙচুর করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থলে আসেন ডিসি। তিনি এসে বিক্ষোভকারীদের বোঝান। এরপর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসেন।