Monk Attack: গঙ্গাসাগরগামী তিন সাধুকে মারধরের ঘটনায় ধৃত ১২
প্রতীকী ছবি

কলকাতা: উত্তরপ্রদেশে থেকে গঙ্গাসাগর মেলায় (Gangasagar Mela) যাওয়ার সময়ে পুরুলিয়ার কাশিপুরে তিন সাধুকে অপহরণকারী গুজবে মারধরের (Monk Attack) ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১২ জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। আরও পড়ুন: Purulia Sadhu Update: গ্রামের তিনটি মেয়েকে অপহরণের সন্দেহে মারধর করা হয় সাধুদের, ব্যাখা তৃণমূল মন্ত্রীর

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই সাধুগুলি উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) বরেলি (Bareilly) থেকে প্রথমে ওড়িশার (Odisha) পুরীতে (Puri) আসেন। তারপর বৃহস্পতিবার দুপুরে (Purulia)পৌঁছান। রাতে গুজব ছড়ায় (kidnapping rumour) যে ওই সাধুরা তিনজন স্থানীয় কিশোরীকে অপহরণ করে পালাচ্ছেন। এরপরই কাশিপুর (Kashipur) গ্রামের (monk) একদল বাসিন্দা তাঁদের বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ।

শনিবার এই বিষয়ে পুরুলিয়া জেলা পুলিশের তরফে একটি বিবৃতি জারি করে জানিয়েছে,বৃহস্পতিবার দুপুর কাশিপুরের (Purulia) কাছে তিনজন স্থানীয় কিশোরীর সঙ্গে ওই সাধুদের ভাষা সমস্যার জন্য ভুল বোঝাবুঝি হয়। মেয়েগুলি ভয় পেয়ে গেছিল। এরপরই স্থানীয় বাসিন্দারা সাধুদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার ও শারীরিক ভাবে হেনস্থা করতে শুরু করে। অপহরণের চেষ্টার অভিযোগে তাঁদের গাড়িও ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে স্থানীয় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে সাধুদের উদ্ধার করে। এই ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলায় এখনও পর্যন্ত ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সাধুদেরও সবরকম সাহায্য দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে শনিবার কলকাতা পৌঁছেই সাধুদের উপর হামলার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। তিনি বলেন, "পশ্চিমবঙ্গে কী পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে? আসলে এটা হল তুষ্টিকরণের রাজনীতির ফলাফল। একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান চলাকালীন রাজ্যে কার্ফুর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। যেখানে হিন্দুরা নিজেদের উৎসবেই অংশগ্রহণ করার সুযোগ পাচ্ছে না। যেখানে সাধুদের উপর হামলা হচ্ছে। আর রাজ্য সরকারও এই বিষয়ে চুপ রয়েছে। তুষ্টিকরণের এই রাজনীতির জন্য পশ্চিমবঙ্গ আজ কোথায় যাচ্ছে? কেন এখানে হিন্দু বিরোধী মনোভাব তৈরি হচ্ছে?" আরও পড়ুন: Sadhus Assaulted In Purulia: পুরুলিয়ায় জনরোষের শিকার সাধুদের সঙ্গে সাক্ষাৎ বিজেপি সাংসদের, ফল-মিষ্টি-শাল তুলে দিলেন তাঁদের হাতে