CDS Gen Bipin Rawat On Terrorism: সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শেষ নয়, অ্যামেরিকার মতো লড়তে হবে: বিপিন রাওয়াত
জেনারেল বিপিন রাওয়াত (Photo Credits: ANI)

নতুন দিল্লি, ১৬ জানুয়ারি: সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ (CDS) বিপিন রাওয়াত ( General Bipin Rawat)৷ তাঁর মতে, নাইন ইলেভেনের (9/11 terror attack) পর সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে অ্যামেরিকা (America) যে রকম কড়া পদক্ষেপ করেছিল, সন্ত্রাসবাদকে সমূলে উৎখাত করতে অ্যামেরিকার মতোই পন্থা অবলম্বন করতে হবে৷ তিনি বলেন, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শেষ হয়নি। এর অবসান ঘটাতে হলে সন্ত্রাসবাদের শিকড় বুঝতে হবে। বৃহস্পতিবার দিল্লিতে একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে জেনারেল বিপিন রাওয়াত বলেন, "সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শেষ হচ্ছে না। এটি এমন একটি বিষয় যা অব্যাহত রয়েছে, যতক্ষণ না আমরা বুঝতে পারছি এবং সন্ত্রাসবাদের শিকড়ের দিকে না পৌঁছোচ্ছি ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের এর সঙ্গে লড়াই করতে হবে।"

জেনারেল রাওয়াত পাকিস্তানের (Pakistan) আন্তর্জাতিক মঞ্চে একঘরে করে দেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, "আমাদের সন্ত্রাসবাদের অবসান ঘটাতে হবে এবং নাইন ইলেভেনের পর অ্যামেরিকানরা যেভাবে করে করেছিল, তাতেই কেবল এর অবসান ঘটতে পারে। তারা বলেছিল যে আসুন সন্ত্রাসবিরোধী বিশ্বযুদ্ধের দিকে এগিয়ে চলি। সন্ত্রাসবাদী এবং তাদের পৃষ্ঠপোষকদের বিরুদ্ধে আমাদের কাজ করা উচিত।" আরও পড়ুন: China Isolated On Kashmir At UN Security Council: চিনের বন্ধুতাই সার, রাষ্ট্রপুঞ্জের রুদ্ধদ্বার বৈঠকে পাত্তাই পেল না পাকিস্তানের কাশ্মীর ইস্যু

পাকিস্তানের নাম না করে রাওয়াতের আরও যোগ, "সন্ত্রাসবাদে অস্তিত্ব থাকবে, যেহেতু এমন রাষ্ট্র আছে যারা সন্ত্রাসবাদের পৃষ্ঠপোষকতা করবে এবং তারা সন্ত্রাসবাদীদের প্রক্সি হিসাবে ব্যবহার করবে। তাদের কাছে অস্ত্র সরবরাহ করবে। তাদের জন্য তহবিল দেবে। সেই কারণে আমরা সন্ত্রাসবাদকে নির্মূল করতে পারব না।"

আন্তর্জাতিক সন্ত্রাস কার্যকলাপের নজরদারি চালানো সংস্থা ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সের (SATF) প্রচেষ্টারও প্রশংসা করেছেন জেনারেল বিপিন রাওয়াত। তিনি বলেছেন, সন্ত্রাসবাদকে পৃষ্ঠপোষকতা করা দেশগুলিকে অবশ্যই কাজ করতে হবে। জেনারেল রাওয়াত বলেন, "যে দেশ সন্ত্রাসবাদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে তাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে হবে। আমি মনে করি যে ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স দ্বারা কালো তালিকাভুক্ত করা একটি উপযুক্ত পদক্ষেপ। তবে এদের কূটনৈতিকভাবে বিচ্ছিন্ন করতে হবে।"