PM Modi On SVANidhi: স্বনিধি প্রকল্পের আওতায় ৩ লক্ষ হকারকে ঋণ ঘোষণা মোদির, দেশের ব্যাংকিং সিস্টেমের সঙ্গে জুড়ছে গরিবরা
নরেন্দ্র মোদি (Photo Credits: PTI)

লখনউ, ২৭ অক্টোবর: প্রধানমন্ত্রী স্ট্রিট ভেন্ডর আত্মনির্ভর নিধি যোজনার অধীনে মিলবে ঋণ। ৩ লাখ হকারকে মঙ্গলবার এই যোজনার অধীনের ঋণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। PM SVANidhi প্রকল্পের ঘোষণা হয় ২০২০ সালের ১ জুন। করোনাভাইরাস অতিমারিতে ক্ষতিগ্রস্ত যে সব গরিব মানুষ রাস্তাঘাটে বিভিন্ন সামগ্রী বিক্রি করা শুরু করেছিলেন এই ঋণ তাঁদেরই জন্যে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সোমবার সকালেই টুইট করে জানান, ‘উত্তরপ্রদেশের যে সব ভাই বোনরা রাস্তায় বসে জিনিস বিক্রি করেন তাঁদের সঙ্গে কথা বলব। জানব কীভাবে প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা তাঁদের চলার পথে সাহায্য করেছে। তাঁদের কতটা সাহস ও ভরসা দিতে পেরেছে।’

জানা গিয়েছে, আজ ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমেই এই দায়িত্ব পালন করলেন মোদি এই প্রকল্প সম্পর্কে প্রাপকদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনাও করেন বলে খবর। মঙ্গলবার এই অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথও। প্রধানমন্ত্রী SVANidhi যোজনার অধীনে পথ হকাররা ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত ঋণ পেতে পারেন ভর্তুকিতে। সংবাদসংস্থা ANI-এর খবর অনুযায়ী এই প্রকল্পের অধীনে এখনও পর্যন্ত প্রায় ২৪ লাখ আবেদন জমা পড়েছে। তার মধ্যে ৫ লাখ ৫৭ হাজার আবেদন এসেছে উত্তরপ্রদেশের হকারদের থেকে। দেশে সর্বোচ্চ আবেদন এই রাজ্য থেকেই জমা পড়েছে কেন্দ্রের দরবারে। এরই মধ্যে ৩ লাখ ২৭ হাজার আবেদন মঞ্জুর করা হয়েছে শুধুমাত্র উত্তরপ্রদেশ থেকেই। তাঁদের জন্যে ইতোমধ্যে ১.৮৭ লাখের ঋণও মঞ্জুর করা হয়েছে। এই তথ্য প্রকাশিত হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর ওয়েবসাইট narendramodi.in-এ। মোট যে সংখ্যক আবেদনপত্র জমা পড়েছে, তার মধ্যে ১২ লাখ এখনও পর্যন্ত মঞ্জুর করা হয়েছে। প্রায় ৫.৩৫ লাখ টাকার লোনও মঞ্জুর করা হয়েছে। আরও পড়ুন-Hathras Gangrape Case: সুপ্রিম রায়, হাথরাস গণধর্ষণ মামলার শুনানি এলাবাদ হাইকোর্টেই

একই সঙ্গে চতুর্থ ইন্ডিয়া এনার্জি ফোরাম CERAWeek-এর উদ্বোধনে এদিনদেশের চিরাচরিত শক্তিকে আরও জোরদার করার কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, “গত ৬ বছরে ১১ মিলিয়নেরও বেশি LED স্ট্রিট লাইট বসানো হয়েছে। এর ফলে বছরে ৬০ বিলিয়ন ইউনিট শক্তি সঞ্চয় করা সম্ভব হচ্ছে। এর ফলে বার্ষিক ৪.৫ কোটি টন কার্বন-ডাই-অক্সাইড অর্থাত্‍‌ গ্রিন হাউস গ্যাস নির্গত হওয়া কমেছে।” শক্তি সংরক্ষণের এই প্রয়াসে ভারত বছরে ২৪,০০০ কোটি টাকার শক্তির খরচ বাঁচাতে পেরেছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।