Pehlu Khan Lynching Case:  পেহলু খান ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে গরু পাচারের মামলা খারিজ করল রাজস্থান হাই কোর্ট
পেহলু খানের পরিবার (Photo Credit: IANS)

জয়পুর, ৩০ অক্টোবর: গোরক্ষকদের হাতে বছর দুয়েক আগে খুন হয়ে যান পেহলু খান। দু’বছর আগে গরু পাচারের অভিযোগে উত্তেজিত জনতা তাঁকে পিটিয়ে মেরেছিল (lynched)। রাজস্থানের ওই ঘটনায় কয়েকজনের বিরুদ্ধে পিটিয়ে মারার অভিযোগে দায়ের হয়েছিল। একইসঙ্গে পেহলু খান ও তাঁর ছেলেদের বিরুদ্ধে গরু পাচারের মামলা হয়েছিল। তবে বুধবার রাজস্থান হাইকোর্ট (Rajasthan High Court) নির্দেশে পেহলু খানের বিরুদ্ধে সেই মামলা নাকচ করে দেওয়া হল। এদিন বিচারপতি পঙ্কজ ভাণ্ডারি (Justice Pankaj Bhandari) বলেন, গো হত্যার জন্য পেহলু খান গরু নিয়ে যাচ্ছিলেন এমন কোনও প্রমাণ মেলেনি। হরিয়ানার নুয়া গ্রামের বাসিন্দা পেহলু খান গোরক্ষকদের গণপিটুনিতে মারা যান ২০১৭-র ১ এপ্রিল। পেহলু খানের বিরুদ্ধে চার্জশিট তৈরি করা হয়েছিল গতবছর ৩০ ডিসেম্বর।

২০১৭-র ১ এপ্রিল যে ট্রাকে পেহলু খান গরু পাচার করছিলেন বলে অভিযোগ, তার মালিকেরও নাম আছে চার্জশিটে। তার পরে রাজ্যে ক্ষমতায় এসেছে কংগ্রেস। গত ২৯ মে বেহরোরে অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের এজলাসে দাখিল হয়েছে চার্জশিট। তাতে পেহলু খান বাদে তাঁর দুই ছেলে ইরশাদ ও আরিফেরও নাম আছে। চার্জশিটের কথা শুনে চমকে গিয়েছে পেহলু খানের পরিবার। ইরশাদ বলেছে, এই ঘটনায় আমরা নতুন সরকারের প্রতিও বিশ্বাস হারিয়ে ফেলেছি। গতবছর রাজস্থানের বিজেপি সরকারও পেহলু খানের দুই সহকারীর বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেছিল। তাঁরাও একসময় উত্তেজিত জনতার হাতে আক্রান্ত হয়। কিন্তু পুলিশ তাদেরই দোষী বলে মনে করেছিল। এদিক গণপিটুনিতে মৃত্যু নিয়ে ততদিনে রাজনৈতিক বিতর্ক শুরু হয়েছে। শিবসেনা নেত্রী প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী পেহলু খান প্রসঙ্গ টেনে বুদ্ধিজীবীদের কটাক্ষ করলেন। আরও পড়ুন-INX Media Case: অসুস্থতার যুক্তিকে পাত্তা দিল না দিল্লি হাইকোর্ট, ১৩ নভেম্বর পর্যন্ত ফের তিহাড়ে পি চিদাম্বরম

৫৫ বছরের পেহলু খান (Pehlu Khan) ছিলেন মেওয়াতের নুয়া জেলার (Nuh village in Haryana) জয়সিংপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি রমজানের সময় বাড়তি দুধ উৎপাদনের জন্য গরু কিনতে গিয়েছিলেন। পথে গোরক্ষকরা (gau rakshaks) তাঁকে ঘিরে ধরে। তিনি তাঁদের গরু কেনার রসিদ দেখান। তাতেও দুষ্কৃতীরা ছাড়েনি। লাঠি ও রড নিয়ে তাঁর উপরে ঝাঁপিয়ে পড়ে।