Pakistan: শিশুদের খুন করে তাঁদের মাংস ভক্ষণ, পাকিস্তানে গ্রেফতার 'নরপিশাচরূপী' যুবক
প্রতীকী ছবি

ইসলামাবাদ, ১৫ ডিসেম্বরঃ নৃশংসতার মাত্রা ছাড়াল পাকিস্তানের (Pakistan) এক যুবক। শিশুদের খুন করে তাঁদের মাংস খাওয়ার মত আচরণ কোন নরপিশাচের পক্ষেই সম্ভব। নিরীহ শিশুদের খুন করার পরে দেহ টুকরো করে সেই মাংস খাওয়ার অভিযোগে পাকিস্তান পুলিশ (Pakistan Police) গ্রেফতার করেছে এক ব্যক্তিকে। এমন পৈশাচিক ঘটনায় শিহরিত গ্রামবাসী।

আরও পড়ুনঃ  মহিলার মৃতদেহ থেকে নিখোঁজ দুই চোখ, অঙ্গ চুরির অভিযোগে গ্রেফতার দুই চিকিৎসক

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে খবর, পাকিস্তানের মুজাফফরগড়ের (Muzaffargarh) খান গড় এলাকা থেকে পাঁচ দিন আগে নিখোঁজ হয় তিন শিশু। থানায় অপহরণের মামলা দায়ের করে নিখোঁজ হওয়া শিশুদের পরিবার। তদন্তে নেমে পুলিশের হাতে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। অভিযুক্ত ব্যক্তি তিন শিশুর মধ্যে দুজনকে খুন করে তাঁদের দেহ টুকরো করেছে। এমনকি শিশুদের মাংস রান্না করে নিজে খেয়েছে সে। শুধু তাই নয় রান্না করা সেই মাংস স্থানীয় একটি মন্দিরে বিতরণ করেছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

আরও পড়ুনঃ দু-দিনের ব্যবধানে ফের কেঁপে উঠল পাকিস্তান, রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ৪.২

মুজাফফরগড়ে (Muzaffargarh) শিশুদের হত্যা এবং তাদের মাংস খাওয়ার মত ভয়ঙ্কর কাণ্ডের অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করেছে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে। অপহৃত হওয়া তিন শিশুর মধ্যে একজনকে স্থানীয়দের সহায়তায় উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। উদ্ধার হওয়া শিশুর নাম আলী হাসান (৭)। তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, শিশুর মানসিক অবস্থা বেশ গুরুতর।

গ্রেফতারির পর পুলিশি জেরায় অভিযুক্ত যুবক ৩ বছর বয়সী আবদুল্লাহ ও দেড় বছরের বোন হাফসাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে। সেই সঙ্গে দুই শিশুর মাংস রান্না করে নিজে খাওয়া এবং মন্দিরে বিতরণের কথাও মেনে নিয়েছে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে অপহরণ, হত্যা, সন্ত্রাস ও অন্যান্য অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। যুবকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন নিহতের পরিবার ও স্থানীয় বাসিন্দারা।