Russia: নেটফ্লিক্স, টিকটক থেকে স্যামসং-ভিসা, রাশিয়া থেকে ব্যবসা গুটিয়েছে যেসব সংস্থা
Vladimir Putin (Photo Credit: Twitter)

ইউক্রেনকে আক্রমণ করে বিশ্বমহলে কোণঠাসা রাশিয়া (Russia)। রাশিয়ার আক্রমণে ইউক্রেনের লক্ষাধিক মানুষ দেশছাড়া, বহু মানুষের মৃত্যু হচ্ছে। তারপরেও প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন যুদ্ধ থামাচ্ছেন না। পুতিনকে নিয়ে নিন্দার ঝড় আন্তর্জাতিক মহলে। রাশিয়ার বেশ কয়েকটি বড় কোম্পানিও আমেরিকা, ইউরোপে ব্যবসা করতে পারছেন না।

ফিনল্যান্ড, বেলজিয়া মের মত দেশে আকাশপথে নিষিদ্ধ হয়েছে পুতিনের দেশ। আবার রাশিয়া থেকেও অনেক নামী বহুজাতিক সংস্থা সরে আসছে। বিশ্বকাপ ফুটবল, অলিম্পিক থেকেও রাশিয়া সাসপেন্ড হয়েছে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল সেন্ট পিটার্সবার্গ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। শীতকালীন প্যারালিম্পিক্সেও রাশিয়াকে খেলতে দেওয়া হচ্ছে না। আরও পড়ুন: Russia-Ukraine War: ইউক্রেনের যুদ্ধ বিধ্বস্ত সুমি থেকে ভারতীয়দের উদ্ধারের চেষ্টা করছে রুশ সেনা, মোদীকে জানালেন পুতিন

আসুন দেখে নেওয়া যাক রাশিয়া থেকে কোন কোন বহুজাতিক সংস্থা তাদের ব্যবসা গুঁটিয়ে নিল---

ফিনান্স- ভিসা, মাস্টারকার্ড

গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থা- ইউক্রেন আক্রমণের পর দুনিয়ার সবচেয়ে বড় চারটি গাড়ি প্রস্ততকারী সংস্থা রাশিয়া থেকে সরে এসেছে। জেনারেল মোটর্স, ফোর্ড মোটর কোম্পানি, ভগসওয়াগেন এজি এবং টোয়োটা মোটর কর্পো। ট্রাকপ্রস্তুতকারী সংস্থা ভোলভো এবিও রাশিয়া থেকে তাদের ব্যবসা গুঁটিয়ে নিয়েছে।

কনজিউমার গুডস - জিন্স সহ বেশ কিছু বস্ত্রপ্রস্তুতকারী সংস্থা লেভি স্ট্রস অ্যান্ড কোম্পানি রাশিয়া থেকে সরে আসে। স্যামসং ইলেট্রনিক্স কোম্পানিও রাশিয়ায় তাদের যাবতীয় কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। রাশিয়ায় অ্যাপেল তাদের আই ফোনের বিক্রি ও সমস্ত সার্ভিস বন্ধ করেছে।

মিডিয়া

ওয়াল্ট ডিজনি, প্যারামাউন্ট পিকচার্স, সোনি কর্পোরেশন, ওয়ার্নার মিডিয়া, ইউনিভার্সাল পিকচার-এর মত হলিউডের নামকরা প্রযোজক সংস্থাগুলি তাদের কোনও সিনেমা রাশিয়া রিলিজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রাশিয়ায় আর নতুন কোনও ইউজার ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্স ব্যবহার করতে পারবে না।

তবে পাল্টা হিসেবে খুব শীঘ্রই রাশিয়ায় হয়তো নেটফ্লিক্স নিষিদ্ধ হচ্ছে। টিকটকও রাশিয়া থেকে তাদের ব্যবসা গোটাচ্ছে। যদিও টিকটক ইতিমধ্যেই ভুয়ো খবর ছড়ানোর দায়ে পুতিনের দেশে সাসপেন্ড আছে। যুদ্ধ ঘোষণার পর রাশিয়ায় ফেসবুক ব্লক করে দেওয়া হয়েছে।