কিডনির জটিল রোগে জেরবার মাসুদ আজহার, জঙ্গি সংগঠন জইশের দায়িত্বভার ভাই রউফের কাঁধে
জইশ প্রধান মাসুদ আজহার (Photo Credit: IANS)

দিল্লি, ১০ সেপ্টেম্বর: পাক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ (Jaish-e-Mohammed) প্রধান মাসুদ আজহার (Masood Azhar) অসুস্থ। তিনি কিডনির জটিল রোগে ভুগছেন। শারীরিক সুস্থতার ক্ষেত্রে কোনওরকম উন্নতির লক্ষণ নেই, ক্রমশ অবনতি হচ্ছে। তাই আগেভাগেই জইশের দায়িত্ব হস্তান্তর হল ভাই আবদুল রউফের কাঁধে। গত ফেব্রুয়ারিতে বালাকোটে যখন জইশের ক্যাম্পে ভারতীয় বায়ু সেনা বিমান হানা করল, তারপরেই অন্তরালে চলে যায় মাসুদ আজাহার। সেখানেই এতদিন ছিল এবার ফের অসুস্থতার কারণে সংবাদ মাধ্যমের নজরে এসেছে জইশ প্রধান। জানা গিয়েছে, যত দিন যাচ্ছে ততই আরও অসুস্থতা ঘিরে ধরছে মাসুদ আজহারকে, প্রাণে বাঁচতে সে এখন ভাওয়ালপুরের জইশ ক্যাম্পে কড়া সুরক্ষায় রয়েছে। তার অবর্তমানে জইশ-ই-মহম্মদের যাবতীয় কুকর্ম পরিচালনা করছে ভাই আবদুল রউফ আসগর (Abdul Rauf Asghar)।

যখন ভারতের হাতে বন্দি মাসুদ আজহার ও অন্যান্যরা, সেই সময় এই আসগরই আইসি-৮১৪ বিমানটি অপহরণের পরিকল্পনা করেছিল। জইশের যাবতীয় নাশকতার পিছনে রউফের হাত রয়েছে। দাদা মাসুদ আজহারের মতোই প্রতি শুক্রবার জুম্মার নামাজের আগে খুদবা পাঠ করে রউফ। জঙ্গি সংগঠনে যোগ দেওয়া যুব সম্প্রদায়ের মগজ ধোলাই করা তার কাজ। তাদের সন্ত্রাসী পোশাক থেকে খাবার সবকিছুর আয়োজনের দায়িত্বে এই আবদুল রউফ আসগর। ভারতীয় সেনার এক কর্মকর্তার কথায় আবদুল রউফ আসগর কোনও কাল্পনিক নাম নয়, সে সত্যিই আছে। এবং জইশের জন্য নিরন্তর কাজ করে চলেছে। এই রউফ এখন জইশের তরফে যাবতীয় সন্ত্রাসী কার্যকলাপের রূপরেখা তৈরি করে। কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা উঠে যাওয়ার পর পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই থেকে ডেকে পাঠিয়ে জম্মু ও কাশ্মীরের সর্বত্র নাশকতা চালানোর জন্য নির্দেশ দেয়। আরও পড়ুন-মাসুদ আজহার-কে গোপনে জেল থেকে ছাড়া হয়েছে, সীমান্তে বাহিনী বাড়িয়ে বড় জঙ্গি হানার জন্য ব্যবহার করতে পারে পাকিস্তান: রিপোর্ট

ভারতের যতগুলো বড়মাপের নাশকতার ঘটনা ঘটেছে সবগুলোর নেপথ্যেই রয়েছে মাসুদ আজহারের ভাই আবদুল রউফ আসগর। অযোধ্যায় সন্ত্রাসী হানা থেকে শুরু করে ২০০১-এ সংসদ হানা ২০১৬-তে উরি অ্যটাক সবতেই সক্রিয় থেকেছে আবদুল রউফের মাথা।