Coronavirus Update: চিনে বসবাসকারী বিদেশিদের e-visa বাতিল করল ভারত!
করোনাভাইরাস নিয়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করল WHO (Photo credits: Px Fuel)

নতুন দিল্লি, ২ ফেব্রুয়ারি: প্রতিষেধক নেই, কিন্তু লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ক্রমশই ভয়ংকর হয়ে উঠছে করোনাভাইরাস (Coronavirus)। পরিস্থিতি বিচার করে শুক্রবারই করোনাভাইরাস নিয়ে সারা বিশ্বে স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)। সাবধানতার প্রয়োজন বললেও এখনই আতঙ্কিত না হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন WHO-এর ডিরেক্টর জেনারেল। এদিকে পরিস্থিতি সামাল দিতে চাইনিজ আর চিনে বসবাসকারী বিদেশিদের জন্য e-visa বাতিল করল ভারত।

ভারতে হানা দিয়েছে করোনাভাইরাস। দ্বিতীয় আক্রান্তের খোঁজ মিলেছে কেরালাতেই (Kerala)। শরীরে মাত্রাতিরিক্ত তাপমাত্রার কারণে ফেরানো হল না, চিনে অভিযোগ অন্ধ্রপ্রদেশের (Andhra Pradesh) ছাত্রীর। উহান থেকে ৩২৩ ভারতীয় নিয়ে দেশের মাটিতে পা দিয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার দ্বিতীয় বিমান। করোনাভাইরাস থাবা বসিয়েছে ওড়িশাতেও। রাজ্যের ৫ জনের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। WHO এর সতর্কবার্তা অনুযায়ী ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কলকাতা-চিন বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে বিমান সংস্থা ইন্ডিগোর তরফে। যাত্রীদের টিকিটের পুরো মূল্য ফেরত দেবে বিমান সংস্থা। এদিকে, উহান থেকে ফিরেছেন ৩১৬ বাংলাদেশি। ৮জনকে নেওয়া হয়েছে কুর্মিটোলা হাসপাতালে। বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর জানিয়েছেন, 'আমাদের মানুষজনের সযত্নে খেয়াল রাখব আমরা।' করোনা আতঙ্কে কলকাতার বেলেঘাটা হাসপাতালে ভর্তি এক মার্কিন নাগরিক। তাঁর শ্বাসকষ্ট রয়েছে। চিন থেকে আসা বিমানের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ভিয়েতনাম। রোমেও চিনা নাগরিক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। চিন ফেরত বাংলাদেশি নাগরিকদের অভিভাবক ও পবিরারের সদস্যদের আতঙ্কিত না হওয়ার এবং বিমানবন্দর ও আশকোনা হজ ক্যাম্প এলাকায় না থাকার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন ডাইরেক্টর জেনারেল হেলথ অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ। আরও পড়ুন: Park Circus Agitation: পার্ক সার্কাসের আন্দোলন মঞ্চেই মৃত্যু হল আন্দোলনকারী প্রৌঢ়া সমিদা খাতুনের

এদিকে জাপান (Japan) ও আমেরিকা ভ্রমণ সংক্রান্ত বিশেষ নির্দেশিকা জারি করায় বিরক্ত চিন (China)। করোনাভাইরাস নিয়ে অহেতুক এত উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই বলে পালটা জানিয়েছেন চিনের রাষ্ট্রদূত। দ্য হিন্দু-র খবর অনুযায়ী,  রাষ্ট্রপুঞ্জের সদর দফতর জেনিভায় শুক্রবার চিনের প্রতিনিধি চেন ঝু বলেন সমস্যা একটা ঘটেছে। তবে পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে। চিনকে নিষিদ্ধ করার মতো বাড়াবাড়ি অনভিপ্রেত।