Mamata Banerjee: 'নিজের মাটি সোনার চেয়েও খাঁটি, যতটুকু পারব করে দেব', ইউক্রেন ফেরৎ পড়ুয়াদের আশ্বস্ত করলেন মুখ্যমন্ত্রী
Mamata Banerjee (Photo Credit: Facebook)

কলকাতা,  ১৬ মার্চ:  যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেন (Ukraine) থেকে বাংলায় যাঁরা ফেরৎ এসেছেন, সেই পড়ুয়ারা যাতে রাজ্যে পড়াশোনা এবং ইন্টার্নশিপের সুযোগ পান, সেই ব্যবস্থা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইউক্রেন ফেরৎ রাজ্যের পড়ুয়াদের সঙ্গে আজ বৈঠকে বসেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানেই পড়ুয়াদের আশ্বস্ত করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইউক্রেন থেকে যাঁরা ফিরেছেন, তাঁদের সাহায্যের জন্য রাজ্য সরকার সমস্ত ধরণের চেষ্টা চালাবে বলেও আশ্বস্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী (Mamata Banerjee)।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ জানান, যাঁরা ইউক্রেনে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তে গিয়েছিলেন, তাঁদের পড়ার ব্যবস্থা রাজ্য সরকার করে দেবে। শুধু তাই নয়, ইউক্রেন ফেরৎ ইঞ্জিনয়ারিং পড়ুয়াদের যাতে বেশি অর্থ ব্যায় করতে না হয়,  সেদিকেও রাজ্য সরকার খেয়াল রাখবে বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  পাশাপাশি ডাক্তারি পড়ুয়াদের যাঁদের ফোর্থ, ফিফত, এবং সিক্সত ইয়ারের পড়াশোনা চলছিল, তাঁদের ইন্টার্নশিপের ব্যবস্থা রাজ্য সরকার করে দেবে। পাশাপাশি যাঁরা ইন্টার্নশিপ করবেন ডাক্তারির ক্ষেত্রে, তাঁদের জন্য স্টাইপেনের ব্যবস্থাও রাজ্য সরকার করবে বলে আশ্বস্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী। ফোর্থ, ফিফত, এবং সিক্সত ইয়ারের মেডিকেল পড়ুয়াদের যাতে ইন্টার্নশিপের জন্য ব্যাবস্থা করা যায়, তার জন্য ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের সঙ্গেও রাজ্য সরকার কথা বলবে বলে জানান মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: Adhir Chowdhury Attacks Kapil Sibal: কংগ্রেসে নতুন নেতা তৈরি করুন গান্ধীরা, কপিল সিব্বলের মন্তব্যে পালটা কটাক্ষ অধীরের

এসবের পাশাপাশি ফার্স্ট ইয়ার, সেকেন্ড ইয়ার, থার্ড ইয়ারে যাঁরা ইউক্রেনে পড়াশোনা শেষ করতে চান, তাঁদের জন্য অনলাইনে পড়াশোনার ব্যবস্থা সরকার করতে পারে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। সেই সঙ্গে মেডিকেল কমিশনের সাহায্য নেওয়া হবে বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী। বেসরকারি কলেজগুলিতে যাতে ব্যবস্থা করা যায়, সে বিষয়েও রাজ্য সরকার পদক্ষেপ করবে বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সবকিছু মিলিয়ে ইউক্রেন ফেরৎ এ রাজ্যের পড়ুয়াদের যাতে কোনওভাবে পড়াশোনায় ব্যাঘাত না হয়, সেদিকে রাজ্য সরকার খেয়াল রাখবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। ইউক্রেনে পশু চিকিৎসক হতে গিয়েছিলেন, এমন এক পড়ুয়ার জন্যও রাজ্য সরকার ব্যবস্থা করে দেবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী।

ইউক্রেনে কাজের সূত্রে গিয়েছিলেন। কাজ হারিয়েছেন, এমন ৩ জনের ক্ষেত্রেও রাজ্য সরকার এগিয়ে এসে সমস্যার সমাধান করে দেবে বলে আস্বস্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী। 'নিজের মাটি সোনার চেয়েও খাঁটি, যতটুকু পারব করে দেব' বলে আজ ইউক্রেন ফেরৎ পড়ুয়া এবং চাকরিজীবিদের আশ্বস্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী।