No CAA In West Bengal: মমতা ব্যানার্জির বিরাট জয়; কেরল, পঞ্জাব এবং রাজস্থানের পর এবার পশ্চিমবঙ্গেও হচ্ছে না সিএএ, বিধানসভায় বিল পাস
মমতা ব্যানার্জি (Photo Credits: IANS)

কলকাতা, ২৭ জানুয়ারি: কেরল, পঞ্জাব এবং রাজস্থানের পর এবার পশ্চিমবঙ্গেও (West Bengal) হচ্ছে না সিএএ (CAA) এবং এনআরসি (NRC)। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির (CM Mamata Banerjee) হস্তক্ষেপে আজ বিধানসভায় পাস হয়ে গেলো সিএএ এবং এনআরসি বিরোধী বিল। আজই রাজ্য বিধানসভায় সিএএ বিরোধী প্রস্তাব (Anti CAA resolution) পেশ করেছিলেন তিনি। সব রাজনৈতিক দলকেই এই প্রস্তাব সমর্থনের আর্জি জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

কংগ্রেস এবং সিপিএমও মমতা ব্যানার্জির পদক্ষেপে প্রতিবাদ করেনি। বিজেপি ওয়াক আউট করে। প্রথম থেকেই সিএএ, এনআরসি এবং এনপিআরের বিরোধিতা করে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। এই নিয়ে রাজ্যের একাধিক জায়গায় মিছিল করেছেন তিনি। উত্তরের দার্জিলিং থেকে দক্ষিণের জেলা সর্বত্র সিএএ বিরোধী মিছিলে শামিল হয়েছিলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সরাসরি সিএএ (CAA), এনআরসি (NRC) এবং এনপিআরে (NPR) ফিরিয়ে নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন তিনি। না নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে সভায় তিনি জানিয়েছিলেন,“নোটবন্দির বিরুদ্ধে প্রথম আমি বিরোধিতা করেছিলাম। আমায় অনেকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, কী করে বুঝলাম এটা খারাপ। নোট বাতিল নিয়ে ৮টা দল আমার সঙ্গে রাষ্ট্রপতির কাছে গেল। বাকিরা গেল না। তারা যদি যেত, তাহলে নোটবন্দি বাতিল হয়ে যেত। NPR বৈঠকে যাইনি। বাকিরা গিয়েছিল। কী ভেবেছিল? মমতাকে একলা করে দেবে? আমি তো একলা চলোয় বিশ্বাসী।” আরও পড়ুন, কেরালা, পাঞ্জাবের পর পশ্চিমবঙ্গ, আজ বিধানসভায় সিএএ বিরোধী রেজোলিউশন

২০২১-এ বিজেপিকে হারাতে যে যুব সম্প্রদায়ের ওপরেই তিনি ভরসা রাখছেন, এদিন তা স্পষ্ট করে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে তৃণমূলের ছাত্র নেতৃত্বকে সামনে বসিয়ে আরও আক্রমণাত্মক ছাত্র আন্দোলনের ডাক দিলেন তিনি। যুব সম্প্রদায়কে তিনি বলেন, “আগামী দু-বছর সাম্প্রাদায়িক শক্তিকে আটকাতে স্বার্থহীন ভাবে কাজ করে যাও, কথা দিচ্ছি আমি তোমাদের ভবিষ্যত গড়ে দেব।”