Narada Sting Case: নারদ মামলায় গ্রেফতার আইপিএস অফিসার এসএমএইচ মির্জ়া
এসএমএইচ মির্জ়া (Photo credits: PTI )

কলকাতা, ২৬ সেপ্টেম্বর: নারদ মামলায় (Narada Case) পুলিশ অফিসার এসএমএইচ মির্জ়াকে ( IPS officer SMH Mirza ) গ্রেফতার করল সিবিআই (CBI)। নারদ মামলায় এটাই প্রথম গ্রেফতার। আজই তাঁকে বিশেষ সিবিআই আদালতে পেশ করা হবে বলে জানা যাচ্ছে। নারদ স্টিং (Narada Sting) ফুটেজে টাকা নিতে দেখা গিয়েছিল মির্জ়াকে। কেন তিনি টাকা নিয়েছিলেন। সে বিষয়ে একাধিকবার জেরা করা হয়। সূত্রের খবর, তাঁর বক্তব্যে অসঙ্গতি ধরা পড়ায় শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। নারদ স্টিং অপারেশনের ভিডিয়ো ফুটেজে এসএমএইচ মির্জাকে টাকা নিতে দেখা গিয়েছিল।

২০১৪ সালে নারদ কর্তা ম্যাথু স্যামুয়েল ((Mathew Samuel)) ব্যবসায়ী সেজে স্টিং অপারেশন করেছিলেন বলে দাবি করেন। ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনের আগে নারদা ডট কম নামের এক ওয়েবসাইটের স্টিং অপারেশনে রাজ্যের মন্ত্রী-আমলাদের অর্থ নেওয়ার ছবি ধরা পড়ে। মদন মিত্র থেকে ফিরহাদ হাকিম, অপরূপা পোদ্দার-দের মত নেতা-মন্ত্রী-সাংসদের সাংবাদিক ম্যাথু স্যামুয়েলের স্টিং অপরাশনে টাকা নিতে দেখা যায়। ঘুষ নেওয়ার ভিডিওকে তৃণমূল জাল বলে দাবি করে এলেও পরবর্তীকালে চণ্ডীগড়ের ফরেনসিক ল্যাবরেটরি থেকে পরীক্ষা করে জানিয়ে দেওয়া হয়, ভিডিওর ফুটেজ খাঁটি। টাকা নিতে দেখা গিয়েছিল এসএমএইচ মির্জ়াকেও। সেই সময় তিনি বর্ধমানের পুলিশ সুপার পদে ছিলেন। কেন তিনি ওই টাকা নিয়েছিলেন, কারও নির্দেশে টাকা নিয়েছিলেন কি না, সে বিষয়ে তাঁকে আগেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। পরে তাঁর বয়ান রেকর্ডের পাশাপাশি কণ্ঠস্বরের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। আরও পড়ুন:  ‘আমার চোখের সামনেই খুন হন সাংবাদিক জামাল খাসোগ্গি’, সৌদি যুবরাজ মহম্মদ বিন সলমন

নারদ নিউজ়ের স্টিং ভিডিও:                

কলকাতার সংবাদমাধ্যমগুলির খবর অনুযায়ী, সিবিআই জেরায় ম্যাথু স্যামুয়েল জানিয়েছিলেন, রাজ্যে ব্যবসা করতে চান বলে ব্যবসায়ী সেজে তিনি তৃণমূলের নেতা-মন্ত্রীদের প্রস্তাব দেন। তখনই তাঁর কাছ থেকে ওই টাকা নেওয়া হয়।