Rose Valley Scam: ইডির দপ্তরে সাতঘণ্টা মুখোমুখি ঋতুপর্ণা, সিজিও কমপ্লেক্সে গেলেন প্রসেনজিৎ
ঋতুপর্ণা ও প্রসেনজিৎ (File Photo)

কলকাতা, ১৯ জুলাই: শুক্রবার বেলা ১১টা নাগাদ ইডি-র (ED) দপ্তরে পৌঁছালেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। টলিউডের এই জনপ্রিয় অভিনেতাকে আগেই তলব করেছিল ইডি। মূলত রোজভ্যালি কাণ্ডেই (Rose Valley Scam) প্রসেনজিতকে তলব করা হয়েছে। এদিন ইডির দপ্তরের সামনে সাংবাদিকদের বলেন, বেরিয়েই কথা বলবেন। অন্যদিকে টানা সাতঘণ্টা ইডির মুখোমুখি বসে প্রশ্নোত্তর সামলালেন অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। তাঁকেও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আগাম তলব করেছিল ইডি। বৃহস্পতিবার সেই উদ্দেশ্যেই সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে পৌঁছান ঋতুপর্ণা। আরও পড়ুন- ইডি ও সিবিআইএর ডাক পেয়েছেন টলিগঞ্জের এই অভিনেতা অভিনেত্রীরা

ইডি সূত্রের খবর,  দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদে অভিনেত্রীর বয়ানও রেকর্ড করা হয়েছে জেরার আগে ঋতুপর্ণা বলেন, “ওঁদের কিছু জানার আছে। আমি এসেছি। আমাদের সংস্থাকে নোটিস পাঠানো হয়েছিল। আমি এসেছি। এখনই এত কিছু বলা যাচ্ছে না। আগে ওঁদের সঙ্গে দেখা করি, তারপর বিষয়টি নিয়ে বলতে পারব।” দীর্ঘ জেরার পর ইডি অফিস থেকে বেরিয়ে অভিনেত্রী জানান, তাঁর সংস্থা ‘ভাবনা আজ ও কাল’। এই সংস্থার সঙ্গে যৌথভাবে রোজভ্যালির একটি প্রকল্প তৈরির কথা ছিল। তানিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যই ইডির এই তলব।

একইভাবে আগেই ইডির তলব পৌঁছেছিল প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের (Acotr Prasenjit Chatterjee) কাছে। সেই নির্দেশিকা মেনেই শুক্রবার বেলা এগারোটায় ইডির দপ্তরে চলে আসেন টলিগঞ্জের এই সফল অভিনেতা। রোজভ্যালি প্রোযজনায় ‘মনের মানুষ’ ও ‘হ্যাংওভার’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়৷ এছাড়াও রোজভ্যালির একটি প্রজেক্টে কাজ করার জন্যে অভিনেতার সঙ্গে প্রায় সাত কোটি টাকা লেনদেন হয়েছিল বলে ইডি সূত্রের খবর। সেই আর্থিক লেনদেন সম্পর্কিত জিজ্ঞেসাবাদের জন্যই প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে তলব করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। গতকাল দুপুর বিকেল পেরিয়ে সন্ধ্যায় ইডির অফিস থেকে বেরিয়েছিলেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। আজ ঠিক কখন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় বেরতে পারবেন তা বোঝা যাচ্ছে না। তবে তাঁর বক্তব্য জানা গেলেই বিষয়টি আরও স্পষ্ট হবে।