Ihsanullah's Injury Controversy: ভুল চিকিৎসার শিকার পাক বোলার ইহসানউল্লাহ, পদত্যাগ পিসিবির প্রধান মেডিকেল অফিসারের
Ihsanullah (Photo Credit: PCB/ X)

ইহসানউল্লাহর (Ihsanullah) চোট নির্ণয়ে দেরি এবং চিকিৎসার ভুল প্রেসক্রিপশনের সমালোচনার পরে পিসিবির প্রধান মেডিকেল অফিসার ডাঃ সোহেল সালিম (Sohail Saleem) পদত্যাগ করেছেন। ইহসানউল্লাহ গত এপ্রিলে চোট পান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয় কনুইয়ের চোটের জন্য তিনি বাইরে রয়েছেন কিন্তু তার ডান কনুইয়ের ব্যথার যথাযথভাবে চিকিৎসা এবং অপারেশন করা হয়নি পরে তার অবস্থার জন্য প্রয়োজনীয় রিহ্যাবের ব্যবস্থাও করা হয়নি। চোট পাওয়া ফাস্ট বোলারদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে পিসিবির চিকিৎসা ব্যর্থতার ব্যাপকতা সম্পর্কে একটি রায়ে কমিটি এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে। তিন সদস্যের একটি স্বাধীন প্যানেলের সমন্বয়ে গঠিত এই রিপোর্টে নির্ধারিত রিহ্যাব পরিকল্পনা না মানার জন্য ইহসানউল্লাহকে আংশিক দোষারোপ করা হয়। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, ইহসানউল্লাহর ক্রিকেটে ফেরাকে সুদূর ভবিষ্যতের সম্ভাবনা হিসেবে উল্লেখ করে প্যানেল 'ডান কাঁধ ও কনুইয়ের ফিজিওথেরাপি' এবং ১২ মাসের মধ্যে সেরে না উঠলে সম্ভাব্য অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিয়েছে। PAK Squad, ENG vs PAK: ইংল্যান্ড এবং আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের দল ঘোষণা পাকিস্তান ক্রিকেটের

ইহসানউল্লাহর চোট নিয়ে রিপোর্ট প্রকাশের পর পিসিবি যে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দিয়েছে তার অংশ হিসেবে ড. সেলিম পদত্যাগ করেছেন। এর মধ্য দিয়ে পিসিবির প্রধান মেডিকেল অফিসার হিসেবে ড. সেলিমের দ্বিতীয় মেয়াদের অবসান হলো। ২০২১ সালে কোভিড-১৯ বাবলে পিএসএল মরসুম আয়োজনে পিসিবির ব্যর্থ চেষ্টার পর ২০২১ সালে পদত্যাগ করেন তিনি, ২০২৩ সালের শুরুতে নাজাম শেঠির সভাপতিত্বে ফের তাঁকে ক্রিকেট বোর্ডে ফিরিয়ে আনা হয়। গত এপ্রিলে ইহসানউল্লাহর চোটের পর প্রায় পুরো এক বছর ধরে তেমন কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। মুলতান সুলতানসের মালিক আলী তারিন গত মাসে টুইটারে জানান, পিসিবি নয়, সুলতানরাই তার ব্যয় বহন করেছে এবং তারা এই মাসের শেষের দিকে ইহসানউল্লাহকে বিশ্বখ্যাত সার্জনের কাছে চেক-আপের জন্য ইংল্যান্ড ভ্রমণের ব্যবস্থা করবে। এরপর তাঁকে নিয়ে ফের পিসিবি শোরগোল শুরু হয়।