Bihar Shocker: পটনায় ১৩ বছরের মেয়েকে ৬জনে মিলে গণধর্ষণ করে স্টেশনে ফেলে পালাল ধর্ষকরা
প্রতীকী ছবি(Photo Credit: PTI)

পটনা, ২২ অগাস্ট: বিহারে মাথাহেঁট করে দেওয়ার মত ঘটনা। পটনায় ১৩ বছরের এক নাবালিকাকে ৬জন মিলে গণধর্ষণ করা হল। বক্সার থেকে অপহরণ করে সেই ১৩ বছরের নাবালিকাকে পটনার একটি ঘর ভাড়া করে, তাকে বন্দি করে রাখে। তারপর টানা ৪দিন ধরে গণধর্ষণ করা হয় সেই নাবালিকা-কে। ৬ জন মিলে টানা চারদিন ধরে নাবালিকাকে ধর্ষণ করে বলে পুলিশ জানায়। চারদিন পর সেই নাবালিকাকে ফের বক্সার জেলায় নিয়ে এসে ডুমরাঁও রেলস্টেশনে পরিত্যক্ত জায়গায় ফেলে পালায়। পুলিশ দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে, বাকি ৪জনের খোঁজে বিশেষ দল গঠন করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট বক্সারের এক গ্রামে খাতা কিনতে বের হয়েছিল ১৩ বছরের মেয়েটি। ফাঁকা জায়গায় মেয়েটিকে জোর করে গাড়িতে তুলে পটনায় নিয়ে যায় ৬জন দুষ্কৃতী। তারপর পটনায় একটি ঘর ভাড়া করে, মেয়েটিকে বন্দি রেখে তাকে চারদিন ধরে ধর্ষণ করে ৬জন। এদিকে মেয়েটির বাড়ির লোকেরা অনেক খোঁজাখুঁজির পরেও কিছু না হওয়ায়, গত শুক্রবার পুলিশের কাছে মেয়েটির মিসিং ডায়েরি করে। পুলিশ তারপর তদন্ত শুরু করে। আরও পড়ুন-'আমি রাজপুত, মাথা নোয়াব না' বলতেই খ্রিস্টান, দলিত, ব্রাক্ষ্মণদের নিয়ে সিসোদিয়াকে খোঁচা বিবেকের

চারদিন ধরে শারীরিক নির্যাতন, গণধর্ষণের পর মেয়েটিকে স্টেশনে ফেলে পালায় দুষ্কৃতীরা। মেয়েটি কোনওরকমে প্রাণ বেঁচে কয়েকজনের সাহায্যে শনিবার, ২০ অগাস্ট বাড়ি ফেরে। এই গণধর্ষণ কাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে শিবম সিং ও সচিন সিং নামের দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।