সকাল থেকেই রাজস্থানের ফলাফলের ট্রেন্ড বলে দিয়েছিল রাজস্থানে মরু ঝড়ে উড়ে যেতে চলেছে অশোক গেহলটের সরকার।১টি আসন বাদে বাকি ১৯৯ আসনের মধ্যে ইতিমধ্যেই ১১৫ টি আসনে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি। ২৬টি আসনে ইতিমধ্যেই জিতেছেন প্রার্থীরা। তাঁর মধ্যে  বাগরু থেকে  জিতলেন কৈলাশ চাঁদ ভার্মা, মহুয়া থেকে জিতলেন রাজেন্দ্র, দেগানা থেকে জিতেছেন অজয় ​​সিং, আলওয়ার আরবান থেকে  সঞ্জয় শর্মা।  

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং ঝালরাপাটনের বিজেপি প্রার্থী বসুন্ধরা রাজে ২১ তম রাউন্ডের গণনার পরে ৫১৪৮৪ ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছেন, এখন পর্যন্ত মোট ১২১৬৮২ ভোট পেয়েছেন তিনি। এরই মধ্যে বিজেপির জয় নিশ্চিত হয়ে গিয়েছে।

হিন্দি বলয়ে কংগ্রেসকে ৩-০ গোলে হারাতে চলেছে বিজেপি। আগেরবার যেখানে তিনটি রাজ্যেই সরকার গড়েছিল কংগ্রেস, সেই তিনটি রাজ্যেই বাজিমাত করছে গেরুয়া শিবির।রাজস্থানের সর্বশেষ ফলাফলে ১১২ টি আসনে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি, ৭২ টি আসনে এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস।এবং বাকি ১৫ টি আসনে এগিয়ে আছে অন্যান্যরা। 

রাজস্থানে ম্যাজিক ফিগার পেরিয়ে গিয়েছে বিজেপি। আপাতত ১০৭টি আসনে এগিয়ে আছে। আর ৭৫টি আসনে এগিয়ে আছে কংগ্রেস। বিএসপি এগিয়ে আছে দুটি আসনে। অন্যান্যরা এগিয়ে আছে ১৫টি আসনে।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুসারে ১৯৯-সদস্যের রাজস্থান বিধানসভায় তিনটি আসনে এগিয়ে গেল কংগ্রেস। সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুসারে রাজস্থানের  কিষাণ পোল, চোমু এবং ডিগ-কুমহের আসনে এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস এবং চাকসু আসনে এগিয়ে রয়েছে বিজেপি

পোস্টাল ব্যালটের গণনার প্রাথমিক ট্রেন্ডে রাজস্থানে এগিয়ে গেল বিজেপি। ক্ষমতাসীন কংগ্রেসের তুলনায় কিছুটা এগিয়ে গেরুয়া শিবির। রিপোর্ট অনুযায়ী, ভোট গণনা শুরুর ১ ঘণ্টা পর এই রাজ্যে বিজেপি এগিয়ে ৭৩টি আসনে। ৫৭টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস। 

পোস্টাল ব্যালটের গণনার প্রাথমিক ট্রেন্ডে রাজস্থানে এগিয়ে গেল বিজেপি। ক্ষমতাসীন কংগ্রেসের তুলনায় কিছুটা এগিয়ে গেরুয়া শিবির। রিপোর্ট অনুযায়ী, ভোট গণনা শুরুর ১ ঘণ্টা পর এই রাজ্যে বিজেপি এগিয়ে ৭৩টি আসনে। ৫৭টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস। 

বাকি তিন রাজ্যের মত আজই ভোট গণনা  রাজস্থান বিধানসভা নির্বাচনের । গত ২৫ নভেম্বর এই রাজ্যের মোট ১৮৬২ জন প্রার্থীর ভাগ্য লিখেছে জনতা, যার  নির্ধারণ হবে আজ। আজই দেখে যাবে অশোক গেহলট রাজস্থানে নিজের গদি বাঁচাতে সক্ষম হবেন, নাকি প্রথা মেনে সেই রাজ্যের মসনদে ফুটবে পদ্ম।

রাজস্থানের মোট ২০০টি বিধানসভা আসনের মধ্যে ১৯৯টিতে ভোটগ্রহণ হয়েছিল। একটি আসনের প্রার্থীর প্রয়াণের কারণে সেখানে ভোটগ্রহণ স্থগিত ছিল। ২৫ নভেম্বর রাজস্থানে ভোটদানের হার ছিল ৭৫.৪৫ শতাংশ। ২০১৮ সালের নির্বাচনের তুলনায় এবছর ভোটদানের হার ০.৭৩ শতাংশ বেশি।