Pranab Mukherjee: ‘ভারতের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কথা বলছি, প্রণব মুখার্জি এটাই ভুলিয়ে দিতেন’ স্মৃতিমেদুর মোহন ভাগবত
মোহন ভাগবত ও প্রণব মুখার্জি (Photo Credits: Twitter)

নতুন দিল্লি, ১ সেপ্টেম্বর: “শূন্যতা ছেড়ে গেলেন প্রণব মুখার্জি (Pranab Mukherjee)। উদার মনোভাবাপন্ন ও দয়ালু ছিলেন তিনি। এমনভাবে মিশে যেতেন যে ভুলেই যেতাম ভারতের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কথা বলছি।” প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির প্রয়াণে তাঁর সম্পর্কে একথাই বললেন রাষ্ট্রীয় স্বয়মসেবক সঙ্ঘের প্রধান মোহন ভাগবত। গতকাল সোমবার ৩১ আগস্ট সন্ধ্যা পাঁটা বেজে ৪৬ মিনিটে সমস্ত লড়াই থামিয়ে অমৃতের পথে যাত্রা করেছেন ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি। তারপর থেকেই বিশ্বজুড়ে একের পর এক শোকবার্তা আসছে। এই মহান রাজনীতিকের প্রয়াণে তাঁকে শ্রদ্ধা জানাতে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসছে শোক বার্তা। আরও পড়ুন-Dr Kafeel Khan To Be Released: সুপ্রিম রায়ে ডাক্তার কাফিল খানকে মুক্তির নির্দেশ এলাহাবাদ হাইকোর্টের

মোহন ভাগবত আরও বলেন, “রাজনৈতিক মতাদর্শ আলাদা হোক না কেন, সবাইকে আপন করে নেওয়াটাই প্রণব মুখার্জির স্বাভাবিক আচরণ ছিল। তিনি সবসময় স্মরণীয়।” আজ বেলা দুটোয় দিল্লির লোদী রোডের মহাশ্মশানে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে। তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে রাষ্ট্রপতি ভবন ও সংসদে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়েছে। সোমবার প্রাক্তন রাষ্ট্রপ্রতির প্রয়াণে দেশজুড়ে সাতদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। ৮৪ বছর বয়সে রাজধানীর আর্মি রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থাতেই অমৃতলোকে যাত্রা করলেন প্রণববাবু। ইতিমধ্যে রাজাজি মার্গের বাড়িতে তাঁর ছবিতে পুষ্পস্তবক দিয়ে শেষ শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, উপ রাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ডু, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ, লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা, চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত, সস্ত্রীক প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ, কংগ্রেসের লোকসভার দলনেতা অধীর চৌধুরী, কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল-সহ বহু নেতা-মন্ত্রী ও সাধারণ মানুষ।

প্রণব মুখার্জির প্রয়াণে শূন্যতার সৃষ্টি হল, স্মৃতিমেদুর মোহন ভাগবত

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি মাথায় আঘাত নিয়ে গত ১০ আগস্ট দিল্লির সেনা হাসপাতালে ভর্তি হন। তারপরেই জানা যায় কোভিডে আক্রান্ত তিনি। রাজাজি মার্গের বাড়িতে পড়ে গিয়ে মাথায় রক্ত জমা বেঁধে গিয়েছিল। মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের জন্যই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ১১ আগস্ট অস্ত্রোপচারের পর প্রণববাবুর আর জ্ঞান ফেরেনি। বরং গভীর কোমায় চলে যান তিনি। টানা ২১ দিন ভেন্টিলেশন সাপোর্টে থেকে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে গিয়েছেন। প্রণব মুখার্জি ভারতের ত্রয়োদশ রাষ্ট্রপতি ছিলেন। পাঁচ দশকের বেশি সময় ধরে সক্রিয় রাজনীতিতে ছিলেন। এই মহান রাজনীতিকের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব ও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন চলছে ক্রমাগত।