Gautam Gambhir: দানিশ কানোরিয়া ধর্মীয় বৈষম্যের শিকার, শোয়েব আখতারের বক্তব্যের পরেই ইমরান খানকে কটাক্ষ গৌতম গম্ভীরের
গৌতম গম্ভীর(Photo Credits: Getty Images)

নতুন দিল্লি, ২৭ ডিসেম্বর: শুধু হিন্দু বলে সতীর্থরা দানিশ কানোরিয়ার (Pakistani leg spinner Danish Kaneria) সঙ্গে কোথাও খেলতে গিয়ে এক টেবিলে বসে খেতেন না। বৃহস্পতিবার এক টিভি সাক্ষাৎকারে একথাই বলেছেন প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার শোয়েব আখতার (Shoaib Akhtar)। এদিকে রাওয়ালপিণ্ডি এক্সপ্রেসের মন্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সমালোচনায় মুখর হয়েছে ক্রিকেট বিশ্ব। সুযোগ পেয়ে শুক্রবার ক্ষোভ উগড়ে দিলেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার তথা বিজেপি নেতা গৌতম গম্ভীর (Gautam Gambhir)। দিল্লির সাংসদ বলেন, পাকিস্তানের আসল চরিত্রটা যে কি তা এবার স্পষ্ট হয়ে গেল। হিন্দু বলে দানিশ কানোরিয়ার সঙ্গে অন্যান্য দুর্ব্যবহার করত। তবে এখানেই শেষ নয়, শোয়েব আখতার সেই সব ক্রিকেটা তারকার নামও প্রকাশ্যে আনবেন যাঁরা দিনের পর দিন দানিশের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছেন। এক টেবিলে বসে খেতে চাননি।

শোয়েব আখতারের বক্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই মনে জোর পেয়েছেন দানিশ। এমনিতেই স্পট ফিক্সিংয়ে ফেঁসে এখন খেলার বাইরে। তিনি এদিন কানোরিয়া বলেছেন, “ইমরান খান-সহ পাকিস্তানের সমস্ত কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও ক্রিকেট বোর্ডের কাছে সাহায্যের আবেদন করছি। আমি খুব কষ্টে আছি। আমাকে এই অবস্থা থেকে উদ্ধার করুন। এর আগে অনেকের কাছে আমি সাহায্য চেয়েছি। কিন্তু পাইনি। ক্রিকেটার হিসেবে পাকিস্তানের হয়ে আমি নিজের সবটা দিয়েছি। এর জন্য আমি গর্বিত। কিন্তু এখন আমার সাহায্যের দরকার। আমি আশাবাদী পাকিস্তানের মানুষ আমাকে সাহায্য করবেন।” অনিল দলপতের পরে দ্বিতীয় হিন্দু ক্রিকেটার হিসেবে পাকিস্তান দলের সদস্য ছিলেন দানিশ। টেস্টে আড়াইশোর বেশি উইকেট রয়েছে এই লেগ স্পিনারের। এই মুহূর্তে সময়টা নাকি ভাল যাচ্ছে না কানেরিয়ার। তাই বাধ্য হয়েই পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কাছে সাহায্য চেয়েছেন তিনি। আরও পড়ুন-General Bipin Rawat: ভারতীয় সেনা বাহিনী সৌজন্যতা ও মানবিকতায় বিশ্বাসী বিতর্ক এড়াতে নয়া মন্তব্যে জেনারেল বিপিন রাওয়াত

এদিন ইমরান খান তথা পাকিস্তানের বিরুদ্ধে চড়া সুরে আক্রমণ শানান গম্ভীর। বলেন, “এটাই পাকিস্তানের আসল চরিত্র। আমাদের দলের অধিনায়ক ছিলেন মহম্মদ আজহারউদ্দিন। ৮০-৯০টা টেস্টে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ওই দেশের প্রধানমন্ত্রী একজন ক্রিকেটার (ইমরান খান)। তারপরও সেখানকার মানুষদের এসব সহ্য করতে হচ্ছে। পাক দলের হয়ে ৬০টি ম্যাচ খেলেছেন কানেরিয়া। তাই এই ঘটনা অত্যন্ত লজ্জার। মহম্মদ কাইফ, ইরফান পাঠান, মুনাফ পটেলকে ভারত অনেক সম্মান দিয়েছে। পটেল তো আমার খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু। আমরা সবসময় দেশকে জেতাতে দলগতভাবে খেলেছি। কিন্তু পাকিস্তানের থেকে যা খবর এল, তা অত্যন্ত দুঃখজনক।”