Maharastra: সাত সকালেই চমক, দ্বিতীয়বার মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হলেন দেবেন্দ্র ফডনবিশ, ডেপুটি হলেন এনসিপি-র অজিত পাওয়ার
দেবেন্দ্র ফডনবিশ ও অজিত পাওয়ার শপথ নিচ্ছেন (Photo: ANI)

মুম্বই, ২৩ নভেম্বর:সাত সকালেই চমক। মহারাষ্ট্রে (Maharastra) সরকার গঠনে নাটকীয় মোড়। এনসিপি (NCP)-র সঙ্গে জোট বেধে মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ল বিজেপি (BJP)। আজ সকালেই দ্বিতীয়বারের জন্য মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিলেন দেবেন্দ্র ফডনবিশ (Devendra Fadnavis)। উপ মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিলেন এনসিপি-র অজিত পাওয়ার (Ajit Pawar)। রাজভবনে রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি তাঁদের শপথবাক্য  পাঠ করান। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ফাডনবিশ ও পাওয়ারকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

গতকাল কংগ্রেস, শিবসেনা এবং এনসিপির বৈঠক কার্যত চূড়ান্ত হয়ে যায়, সেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরেই হচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। এব্যাপারে সব দল সম্মতি দিয়েছে। ছেলে আদিত্যকে নিয়ে বেরিয়ে এসে যদিও এব্যাপারে ভেঙে বলতে চাননি উদ্ধব। শিবসেনা সুপ্রিমো জানান, আলোচনা ইতিবাচক ও ফলপ্রসূ হয়েছে। গতকাল রাতেও শরদ পাওয়ার জানিয়েছিলেন, তিন দল সহমতে পৌঁছেছে। উদ্ধব ঠাকরেই হবেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু বারো ঘণ্টা না কাটতেই রাজনীতিতে এমন পট পরিবর্তন নজিরবিহীন। সকালেই দেখা গেল এনসিপি বিধায়ক তথা শরদ পাওয়ারের ভাইপো অজিত পাওয়ার ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ নিতে। এনসিপির হাত ধরেই বিজেপি রাতারাতি সরকার গড়ার প্রস্তাব রাজ্যপালের কাছে রাখে। আরও পড়ুন: NCP Chief Sharad Pawar: মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে, সাংবাদিকদের বললেন শরদ পাওয়ার

দ্বিতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর দেবেন্দ্র ফডনবিশ বলেন, "জনগণ আমাদের একটি স্পষ্ট রায় দিয়েছিল। তবে আমাদের মিত্র শিবসেনা ফলাফলের পরে অন্যান্য দলের সঙ্গে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল। ফলস্বরূপ, রাষ্ট্রপতির শাসন জারি করা হয়। মহারাষ্ট্রে একটি খিচুড়ি সরকার নয়, একটি স্থিতিশীল সরকার দরকার ছিল।" তিনি আরও বলেন, "আমি এনসিপি-র অজিত পাওয়ারজির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে চাই, তিনি মহারাষ্ট্রে স্থিতিশীল সরকার এবং বিজেপির সঙ্গে একত্রিত হওয়ার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। অন্য কয়েকজন নেতাও আমাদের সঙ্গে এসেছেন। এবং আমরা সরকার গঠনের দাবি জানালাম।" উপ মুখ্যমন্ত্রী অজিত পাওয়ার বলেন, "রাজ্যে কোনও সরকার না থাকায় কৃষকরা সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন। তাই আমরা স্থিতিশীল সরকার গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।"