UP Shocker: মায়ের ধমকের বিরাট সাজা, গোটা পরিবারকে বিষ খাইয়ে মারল নাবালিকা
অপরাধ (Photo Credits: Pixabay)

এলাহাবাদ, ১১ আগস্ট: পরিবারের সদস্যদের বিষ মেশানো খাবার (poisonous food) পরিবেশন করে পুলিশের জালে নাবালিকা৷ গত সোমবার উত্তরপ্রদেশের এলাহাবাদ জেলা থেকে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ৷ গত সপ্তাহে ধৃতের বাবা, দাদা ও বোনের মৃত্যুর পরই তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ৷ দাদা ও মায়ের নিরন্তর বকাঝকায় বিরক্ত নাবালিকা খাবারের সঙ্গে আগাছা মারার বিষ মিশিয়ে দেয়৷ এবং সেই বিষাক্ত খাবার পরিবারের সবাইকে পরিবেশনও করে সে৷ জানা গেছে, গৃহস্থালীর কাজকর্ম নিয়ে দাদা ও মা তাকে প্রায়শই ধমক দিতেন৷ তাই তাঁদের শাস্তির বন্দোবস্ত করে নাবালিকা৷ গত ২৮ জুলাই খাবারের সঙ্গে সে বিষ মেশায়৷ সেই খাবার খাওয়ার পরেই গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন নাবালিকার বাবা-মা, দাদা ও বোন৷ আরও পড়ুন-IAS Couple Divorced: অবশেষে আইএএস দম্পতি টিনা দাবি-আতহার খানের বিবাহ বিচ্ছেদ

চারজনকেই চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়৷ গত ৪ আগস্ট বাবার মৃত্যু হয়৷ এরপরেই গ্রামের প্রধান পুলিশে খবর দেন৷ শুরু হয় তদন্ত৷ চারদিন পর চিকিৎসা চলাকালীন দাদা ও বোনেরও মৃত্যু হয়৷ তদন্তের সময় পরিবারের একমাত্র সুস্থ সদস্য ওই নাবালিকার আচরণে সন্দেহ হয় পুলিশের৷ তাকে জিজ্ঞাসাবাদের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ জেরার সময় অপরাধ স্বীকার করে নাবালিকা৷ জানায়, আগাছা মারার বিষ খাবারে মিশিয়েছিল সে৷ সেই খাবার খায় পরিবারের সদস্যরা৷ এরপরেই ভারতীয় দণ্ডবিধিরার ৩০২ ধারার অধীনে নাবালিকা মেয়ের বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর দায়ের করেন মা৷ এছাড়াও ৬ জনের বিরুদ্ধে আরও একটি মামলা দায়ের হয়েছে৷ গোটা পরিবার হাসাপাতলে ভর্তি থাকায় অভিযুক্ত ৬ জন ফাঁকা বাড়ির থেকে গৃহস্থালীর সামগ্রী চুরি করেছিল৷