Maharashtra Assembly Elections 2019 Results: ১৫০ আসনে এগিয়ে বিজেপি-শিবসেনা জোট
চলছে ভোট গণনা (Photo: ANI)

মুম্বই, ২৪ অক্টোবর: প্রত্যাশামতোই মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনে একে অপরকে কড়া টক্কর বিজেপি-শিবসেনা জোট ও কংগ্রেস-NCP জোটের। ইতিমধ্যেই সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে এগিয়ে গেছে বিজেপি-শিবসেনা জোট। মোট ১৫০র বেশি আসনে এগিয়ে রয়েছে তারা। গত সোমবার হরিয়ানার সঙ্গে এ রাজ্যেও বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হয়। মোট ৩২,২৩৯ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে আজ। এ বারের নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৮ কোটি ৯৮ লাখ। ভোটগ্রহণ পর্ব চলেছে ৯৬ হাজার ৬৬১টি কেন্দ্রে। এ বারের নির্বাচনে বিজেপি লড়েছে ১৬৪টি আসনে, শিবসেনা ১২৪টিতে। অন্য দিকে, ১৪৭টি আসনে প্রার্থী দিয়েছিল কংগ্রেস, এনসিপি লড়ছে ১২১টি আসনে। বৃহস্পতিবার সকাল ৮ থেকে শুরু হয়েছে ভোটগণনা। গণনার প্রাথমিক প্রবণতায় ২ রাজ্যেই বিজেপি এগিয়ে ছিল। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কংগ্রেস জোর টক্কর দিতে শুরু করে। গণনার প্রাথমিক প্রবণতা অনুসারে মহারাষ্ট্র বিধানসভায় বিজেপি ও শিবসেনা জোট এগিয়ে ১৫০টি আসনে। ওদিকে কংগ্রেস ও এনসিপি জোট এগিয়ে ৯৬টি আসনে।

বহুজন বিকাশ আগাদীর হিতেন্দ্র বিষ্ণু ঠাকুর ভাসাই বিধানসভা কেন্দ্র থেকে এগিয়ে রয়েছেন। পারলি আসনে পিছিয়ে রয়েছেন বিজেপির পঙ্কজ মুন্ডে, মালেগাঁও সেন্ট্রাল আসনে এগিয়ে AIMIM প্রার্থী মুফতি ইসমাইল। ওরলি আসনে এগিয়ে শিবসেনার আদিত্য ঠাকরে। বেলাপুর আসনে এগিয়ে NCP-র অশোক গাওড়ে। ভাকোর বিধানসভা আসনে এগিয়ে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস প্রার্থী অশোক চহ্বন। কোলাবা আসনে এগিয়ে রাহুল নারওয়েকর। নাগপুর দক্ষিণ আসনে এগিয়ে মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিস। আরও পড়ুন: Assembly Elections 2019 Results Live News Updates: মহারাষ্ট্র-হরিয়ানা দুই রাজ্যেই এগিয়ে বিজেপি, কড়া নিরাপত্তার মধ্যে চলছে ভোটগণনা

মহারাষ্ট্রের মোট বিধানসভা আসন ২৮৮টি। হরিয়ানায় ৯০টি বিধানসভা কেন্দ্র আছে। এই দুই রাজ্যেই বিজেপি ক্ষমতায় আছে। ক মাসে শেষ হওয়া লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদি ঝড়ে দেশের প্রায় সর্বত্রই বিরোধীরা উড়ে গিয়েছে। মহারাষ্ট্রে, হরিয়ানাতে লোকসভা নির্বাচন ২০১৯-এ বিজেপি কার্যত সব আসনেই জেতে। এই দুই রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে এবার অনেকটা এগিয়ে থেকেই শুরু করেছে বিজেপি। প্রচারেও অনেকটা এগিয়ে ছিল বিজেপি।

লোকসভায় বড় হারের পর একেবারে ছত্রভঙ্গ অবস্থা কংগ্রেসের। মহরাষ্ট্র, হরিয়ানা-দুই রাজ্যকেই একটা সময় কংগ্রেসের গড় মনে করা হত। ২০১৪ সাল পর্যন্ত দুই রাজ্যে কংগ্রেস সরকার ছিল। কিন্তু এই দুই রাজ্যেই কংগ্রেসের অবস্থা শোচনীয়। অনেকেই মনে করেছেন, এবার এই বিধানসভা নির্বাচনে সবচেয়ে খারাপ ফল করতে পারে কংগ্রেস। দুই রাজ্যেই রাজ্য সরকারদের কাছে ক্ষোভ ছিল। কিন্তু সেটা প্রচারে কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়েছে কংগ্রেস। যেহেতু লোকসভা নির্বাচনের বছরেই ভোট হয়েছে, তাই এই দুই রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে লোকসভার ফলের প্রভাব পড়বেই। তাই বিজেপি অনেকটা এগিয়ে। হরিয়ানা ৩টি-কেন্দ্রের প্রাথমিক ফলাফলের ট্রেন্ড আসতে শুরু করেছে। এক্সিট পোলের অনুমান অনুসারে মহারাষ্ট্রে বিজেপি-শিবসেনা সরকার গড়তে চলেছে। হরিয়ানায় নিরঙ্কুশভাবে ফের ক্ষমতায় আসতে চলেছে বিজেপি।