Rape: দু বছর ধরে সাধু সেজে লুকিয়ে ছিল মধ্যপ্রদেশের ধর্ষক, অবশেষে গ্রেফতার উত্তরপ্রদেশ থেকে
Rape | Image used for representational purpose (Photo Credits: File Image)

ভোপাল, ১ জুন: মধ্যপ্রদেশে (Madhya Pradesh) এক নাবালিকাকে ধর্ষণ করে উত্তরপ্রদেশে পালিয়েছিল ৫০ বছরের এক ব্যক্তি। অভিযুক্তের নাম সত্যেন্দ্র শুক্লা (Satyendra Shukla)। তারপর থেকে প্রায় দু বছর সাধুর (Sadhu) ছদ্মবেশ ধরে উত্তরপ্রদেশের চান্দুলি জেলার এক গ্রামের মন্দির আরামসে দিন কাটাচ্ছিল। ২০১৯ সালের মার্চে ১৭ বছরের এক নাবালিকাকে কালো জাদুর ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করার ঘটনা নিয়ে মধ্যপ্রদেশে তোলপাড় হয়। পুলিশের চোখধুলো দিয়ে কী করে অভিযুক্ত পালিয়ে যেতে পারল তা নিয়ে প্রশাসনের ওপর চাপ বাড়ছিল। পুলিশ তন্নতন্ন করে খুঁজেও অভিযুক্তর খোঁজ পাচ্ছিল না। আরও পড়ুন: Karan Mehra: স্ত্রীর সঙ্গে চরম অশান্তি, গ্রেফতারির পর জামিনে মুক্ত অভিনেতা করণ মেহরা

অভিযুক্তর খোঁজ দিতে পারলে পাঁচ হাজার টাকার অর্থ পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়েছিল। তারপরেও তার কোনও খোঁজ মিলছিল না! নিলবে কী করে! তখন তো অভিযুক্ত ছদ্মবেশে সাধু সেজে গ্রামবাসীদের মাঝে আশীর্বাদ দিচ্ছেন। শেষ অবধি মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে সাইবার সেলের সাহায্যে সাতানা পুলিশ উত্তরপ্রদেশের চান্দুলি জেলার এক মন্দির থেকে ৫০ বছরের সত্যেন্দ্র শুক্লাকে গ্রেফতার করে। সাধুর বেশে তখন সেই ধর্ষক ঘুমোচ্ছিল।

ধর্ষণের ঘটনার ঠিক ১ বছর ১০ মাস পর অভিযুক্তকে ধরা গেল। পুলিশ জানান, অভিযুক্তর খোঁজে এর আগে নানা জায়গায় হানা দেওয়া হয়েছিল। অন্য রাজ্যেও খোঁজ করা হয়েছিল। কিন্তু শেষ অবধি সাইবার সেলের সূত্রেই তাকে ধরা সম্ভব হয় বলে পুলিশ জানায়।