নির্বাচন কমিশনার অশোক লাভাসার স্ত্রীকে নোটিস আয়কর দপ্তরের
অশোক লাভাসা ও সুনীল অরোরা(Photo Credit: PTI)

দিল্লি, ২৩ সেপ্টেম্বর: গত লোকসভা নির্বাচনে প্রচারের সময়ই প্রথম লাইমলাইটে চলে আসেন ১৯৮০ ব্যাচের আইএএস অফিসার অশোক লাভাসা (Ashok Lavasa)। এবার তনি নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্বও সামলেছেন, আর সেই দায়িত্ব পালনে গিয়েই মোদি শাহর সঙ্গে তাঁর খটাখটি লেগে যায়। সেনাবাহিনীকে কোনওভাবেই প্রচারে উদাহরণ হিসেবে টানা যাবে না, এমন নির্দেশিকা থাকলেও বার বার পুলওয়ামা ও বালাকোট প্রসঙ্গ তুলে নির্বাচনী ময়দান জমাতে চেয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদি ও অমিত শাহ। এই ঘটনায় যারপরনাই বিরক্ত নির্বাচন কমিশনার অশোক লাভাসার দাবি দুজনেই নির্বাচনী বিধিভঙ্গ করেছেন। তবে লাভ কিছুই হয়নি, কেউই লাভাসার বক্তব্য গায়ে মাখেনি। সেই জের পড়ল এবার লাভাসার স্ত্রী নভেল সিঙ্ঘলের উপরে। তাঁকে নোটিস ধরাল আয়কর দপ্তর।

ব্যাংকার নভেল (Novel Singhal) ২০০৫-এ স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া থেকে পদত্যাগ করেন তিনি। ২০১৪ সালে অশোক লাভাসা কেন্দ্রীয় সরকারের সচিব নিযুক্ত হওয়ার পরই তিনি একাধিক সংস্থার পরিচালন বিভাগের দায়িত্ব হাতে পান বলে অভিযোগ। তবে আয়কর দপ্তরে জমা দেওয়া নথিতে তার কোনও উল্লেখ ছিল না বলে খবর। স্বাধীন ভাবে বিভিন্ন সংস্থার পরিচালনার দায়িত্বে থাকা সত্ত্বেও, আয় সংক্রান্ত সঠিক তথ্য না দেওয়াতেই নাকি তাঁকে নোটিস ধরানো হয়েছে। আরও পড়ুন-Census 2021:‘এক দেশ এক কার্ড’ ডিজিটাল শুমারিতে আসছে মাল্টিপারপাস পরিচয়পত্র: অমিত শাহ

শোনা যাচ্ছে, লোকসভা নির্বাচনের সময় মোদি শাহর বিরুদ্ধে ঊষ্মা প্রকাশের ফলই স্ত্রীর উপর থেকে পেলেন লাভাসা। তাঁকে কোনওরকম বিব্রত করতে না পেরে স্ত্রী লভেল সিংহকেই আয়করের জালে ফাঁসানো হল। সেই সময় মোদি শাহর বিরুদ্ধে আসা ঘটনায় তাংর মতামতকে গ্রাহ্য করা হচ্ছে না বলে ক্ষোভও প্রকাশ করেছিলেন তিনি। তাঁর অভিয়োগ নাকি নথিভুক্তও করা হয়নি। মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরাকে এনিয়ে চিঠিও দেন তিনি। তারপরেই এই ঘটনায় অনেকেই যোগসূ্ত্রতার গন্ধ পাচ্ছেন বলেখবর। এমনিতে ১৯৮০ ব্যাচের আইএএস অফিসার অশোক লাভাসা কর্মক্ষেত্রেও সুনাম অর্জন করেছেন। অর্থ, পরিবেশ, অরণ্য ও জলবায়ু মন্ত্রকের সচিবের পদও সামলেছেন। সামলেছেন অসমারিক বিমান পরিবহণ সচিবের পদও। ২০১৮-র ফেব্রুয়ারি মাসে দুই নির্বাচন কমিশনারের অন্যতম হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন তিনি। তারপরেই এই মূর্তিমান বিপদ তাঁর শিয়রে হাজির।