Rahul Gandhi On Emergency: ৭৫-এর জরুরি অবস্থার সিদ্ধান্ত ভুল ছিল, বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি রাহুলের
রাহুল গান্ধী (Photo Credits: PTI)

নতুন দিল্লি, ৩ মার্চ: ১৯৭৫ সালে ঠাকুমা ইন্দিরা গান্ধীর জরুরি অবস্থার সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। অর্থনীতিবিদ কৌশিক বসুর সঙ্গে আলোচনা প্রসঙ্গে এই বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি কংগ্রসে নেতা রাহুল গান্ধীর (Rahul Gandhi)। তবে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগতে ছাড়েননি রাহুল। বলেন, জরুরি অবস্থার সময়ের সঙ্গে বর্তমানের মধ্যে অনেক মূলগত পার্থক্য রয়েছে। কংগ্রেস কোনও প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোকে আক্রমণ করেনি। কিন্তু বর্তমান মোদি সরকার দেশের মৌলিক কাঠামোকে বদলে দিচ্ছে। জরুরি অবস্থা না হলেও এই সরকারের আমলে যা চলছে তাতে পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ। এদিকে জুরির অবস্থার প্রসঙ্গে টেনে আগেই আক্রমণ শানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। এবার কিনা ঠাকুমার সিদ্ধান্তকে ভুল আখ্যা দিয়ে রাজনৈতিক মহলে ঝড় তুললেন রাহুল গান্ধী। আরও পড়ুন-WB Assembly Elections2021: অনুব্রত মন্ডলকে কুকুরের সঙ্গে তুলনা শোভন-বৈশাখীর, কী বললেন কেষ্টদা?

তিনি বলেন, “জরুরি অবস্থা চলাকালীন নাগরিক স্বাধীনতা থেকে শুরু করে সাংবিধানিক অধিকারগুলি খর্ব হয়েছিল। সংবাদমাধ্যমও ছিল নিয়ন্ত্রিত। বহু বিরোধীদের নেতাদের জেল খাটতে হয়েছে মানলাম। কিন্তু, বর্তমানে দেশে যা চলছে নীতিগতভাবে তার থেকে অনেক আলাদা ছিল ওই পরিস্থিতি।” অন্যদিকে জরুরি অবস্থা প্রসঙ্গে গান্ধী পরিবারকে আগেই নিশানা করেন অমিত শাহ। গতজুনে তিনি বলেনছিলেন, “ক্ষমতালোভী একটি পরিবার রাতারাতি গোটা দেশকে কারাগার বানিয়ে দিয়েছিল। সাধারণ মানুষের মতামত থেকে শুরু করে সংবাদমাধ্যম, এমনকী আদালতেরও টুঁটি চিপে ধরে সরকার।”

বর্তমানে দেশের গণতন্ত্র আছে কি না এই আলোচনা প্রসঙ্গে রাহুল গান্ধী বলেন, “ যে সব প্রতিষ্ঠানগুলি দেশে গণতন্ত্র বজায় রাখতে সাহায্য করে, সেগুলিকে সুকৌশলে আঘাত করা হচ্ছে। এখন দেশের সব সরকারি প্রতিষ্ঠানে পরিকল্পনা করে আরএসএস তাদের লোকদের ঢুকিয়ে দিচ্ছে।”