দলিতকে বিয়ে করায় বিজেপি বিধায়ক বাবার খুনের হুমকি মেয়ে-জামাইকে, বাঁচানোর আবেদনে ভিডিও বিধায়কের মেয়ের
বিজেপি মেয়ের বিধায়ক সাক্ষী মিশ্রের আর্তি। (Photo credits: Twitter)

বারেলি, ১১ জুলাই: প্রেম-বিয়ের পথে জাতপাত কাঁটা আর তাতে ক্ষমতাবান রাজনৈতিক নেতার আস্ফালন। আরও একবার উত্তরপ্রদেশে জাতপাত নিয়ে নোংরা রূপটা সমানে এল। যেখানে কঠাগড়ায় উঠলেন খোদ শাসক দলের বিধায়ক। বারেলির চেইনপুরের বিজেপি বিধায়ক রাজেশ মিশ্র-র বিরুদ্ধে তার মেয়েকে খুনের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল। কারণ তার মেয়ে নিচু জাতের ছেলেকে বিয়ে করেছে।

খোদ বিজেপি বিধায়কের মেয়েই এই অভিযোগ তুলে বললেন, তিনি অনার কিলিংয়ের আশঙ্কাই আছেন। ভিডিও করে তাঁর বাবাকে গুন্ডা সরিয়ে নিতেও আবেদন করলেন। আরও পড়ুন-কর্নাটকে রক্তাক্ত কংগ্রেস গোয়ায় কোমায় চলে গেল- হাত ছেড়ে পদ্মের শোভা বাড়লেন বিরোধী দলনেতা সহ ১০ বিধায়ক

বিধায়কের মেয়ের দাবি, দলিত ছেলেক বিয়ে করায় তাঁর বাবা তাকে হুমকি দিচ্ছে, নানাবাবে হেনস্থা করছে। সাক্ষী মিশ্র নামে বিধায়কজির মেয়ে একেবারে ভিডিও করে যোগী আদিত্যনাথের রাজ্যের বিধায়কের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক এই অভিযোগ আনলেন। বিথারি-র চেইনপুরের বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগের এই ভিডিওটি সোশ্য়াল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

ভাইরাল ভিডিওতে বিধায়কের মেয়ে দাবি করছেন, ২৯ বছরের দলিত যুবক অজিতেশকে ভালোবেসে সে গত বৃহস্পতিবার বিয়ে করেছে৷ কিন্তু সেই বিয়ে না মেনে, এখন হুমকি-হেনস্থা করছেন তাঁর বাবা। এই কারণে তার দাম্পত্য জীবন অত্যন্ত বিপদে। নিচু জাতির ছেলেকে বিয়ে করাটা কোনও পাপ নয় এটা বাবা বুঝলেন না বলেও আফশোস করেন তিনি৷  তার বিধায়ক বাবা তাদের মেরে ফেলতে বলেও আশঙ্কা ররছেন সাক্ষী।

পুরো ঘটনাটা ঠিক যেন সিনেমার মত। আসলে সিনেমা তো বাস্তব থেকেই হয়। নিচু জাতের ছেলেকে বিয়ে করায়, রাগে মেয়ে-জামাইকে হুমকি-হেনস্থা করছেন ক্ষমতায় থাকা রাজনীতিবিদ। বিধায়কজির মেয়ের আবেদন, তাদের যেন নিজেদের পছন্দের জীবন কাটাতে দেয় তার বাবা৷ এমনকি বাবা যেভাবে হেনস্থা করছে, তাতে তারা খারাপ কিছু (আত্মহত্যা) করলে তার দায় বর্তাবে রাজেশ মিশ্রের উপরই৷ এক্ষেত্রে নিজের বাবাকে কোন মতেই রেহাই দেবে না সে৷''সাক্ষী এরপর অন্যান্য রাজনীতিবিদ-দেরও সাহায্য চেয়েছেন৷ তালিকায় নাম রয়েছে বেশ কয়েকজন বিধায়ক-সাংসদেরও৷

ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর নড়েচড়ে বসেছে পুলিশ। ডেপুটি সুপার আর কে পান্ডে জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে৷ ভাইরাল ভিডিও ফুটেজ দেখে এসএসপিকে নব দম্পতির নিরাপত্তা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন৷ নিরাপত্তার কারণেই সাক্ষী ও তার স্বামী এখন কোথায় রয়েছেন তা জানানো হয়নি। বিজেপি অবশ্য এই ঘটনা থেকে দায় ঝেড়ে ফেলে, এটি বিধায়কের পারিবারিক সমস্যা বলে এড়িয়ে গিয়েছে।