ডোনাল্ড ট্রাম্পের অতিথি,  আমেরিকা সফরে হোয়াইট হাউসেই থাকবেন ইমরান খান
ইমরান খান(Photo Credit: IANS)

ওয়াশিংটন, ১১ জুলাই: তিনদিনের মার্কিন সফরে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের (US President Donald Trump) আতিথ্য গ্রহণ করবেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এই প্রথম ডোনাল্ড ট্রাম্পের মুখোমুখি হচ্ছেন ইমরান, তাই বৈঠকটিও বেশ গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। ইতিমধ্যেই ইমরান খানকে স্বাগত জানানোর জন্য সাজ সাজ রব পড়ে গিয়েছে হোয়াইট হাউসে। আর্থিক সংকটে রয়েছে পাকিস্তান, তাই বিদেশ সফরে গিয়ে বিলাসবহুল হোটেলে থাকার বিষয়টি বাতিল করে দেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Pakistani Prime Minister Imran Khan)। ওয়াশিংটনে অবস্থিত পাকিস্তানের রাষ্ট্রদূত আসাদ মজিদ খানের বাসভবনেই উঠবেন তিনি। তাহলে একগাদা অর্থের অপচয় হবে না। এই খবরে বেশ ক্ষুন্ন হয় ওয়াশিংটন। আরও  পড়ুন-আমেরিকায় রাষ্ট্রদূতের বাড়িতে থাকবেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, কেন জানেন?

তাছাড়া নিরাপত্তার বিষয়টিও তো ভাবতে হবে। আমেরিকাতে আসা বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধান নগর প্রশাসন এই নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করে থাকে। এখন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী যদি রাষ্ট্রপ্রধানের বাড়িতে থাকেন তাহলে সেই নিরাপত্তায় ব্যাঘাত ঘটতে পারে। তবে সবাইকে চমকে দিয়ে ইমরান খানকে হোয়াইট হাউসেই আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এই মাসের ২২ তারিখে ইমরান খান পৌঁছচ্ছেন আমেরিকা সফরে। ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। সূত্রের খবর, আমেরিকা ও পাকিস্তানের সম্পর্ক আরও মজবুত করার দিকেই বেশি জোর দেওয়া হবে বৈঠকে। শান্তি, স্থিতি ও অর্থনৈতিক বৃদ্ধি আরও বাড়ানোই মূল লক্ষ্য এই বৈঠকের।

হোয়াইট হাউস সূত্রের খবর, ২২ জুলাই ইমরান খানকে স্বাগত জানানোর প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গিয়েছে।পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরে এই প্রথম ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করবেন ইমরান খান৷ যে বৈঠকের দিকে চেয়ে রয়েছে নয়াদিল্লিও৷ ভারতের আশা, এই বৈঠক থেকে সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দেবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ এমনিতেই জঙ্গি মাসুদ আজহারকে নিয়ে কম টালবাহানা হল না, মাসুদ আজহারের নামের সঙ্গে আন্তর্জাতিক জঙ্গির তকমা বসাতে গিয়ে হিমশিম খেল ভারত। তবে আমেরিকা, ইংল্যান্ড ও ফ্রান্স-সহ বেশকিছু দেশের সহায়তায় সেই কাজ মিটেছে। শেষমুহূর্তে এসে পাকিস্তানের বিশেষ বন্ধু চিনও সায় দেয়। তাই কাশ্মীর সন্ত্রাস প্রসঙ্গে ট্রাম্প ইমরানের মধ্যে কী কথা হয় এখন সেদিকেই তাকিয়ে নয়াদিল্লি।