অভিষেকের আগে কী অঘটন ঘটালেন থাইল্যান্ডের রাজা?‌
থাইল্যান্ডের রাজা বিয়ে করলেন দেহরক্ষীকে(credit-Face Book)

৭ মে,২০১৯: রাজমহলে ব্যাপার সেপার নিয়ে কৌতুহল একটু বেশিই থাকে প্রজা মহলে। তারপরে রাজা যদি বড় কোনও ঘটনা ঘটান তাহলে তো রক্ষে নেই। থাইল্যান্ড(Thailand) এখন রাজকাণ্ডে তোলপাড়। অভিষেকের পরেই এক চরম কাণ্ড ঘটিয়েছেন থাইল্যান্ডের বর্তমান রাজা (King)মহা বাজিরালংকর্ণের। নিজেরই দেহরক্ষীকে বিয়ে করে বসেছেন তিনি।

বাবা ভূমিবলের মৃত্যুর পর যুবরাজ হিসেবেই দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন বাজিরালংকর্ণ (King Vajiralongkorn)। দিন কয়েক আগেই তাঁর রাজ্যাভিষেক হয়েছে। সেই উৎসবের রেশ কাটতে না কাটতেই দেহরক্ষী সুথিডাকে বিয়ে করে বসেন তিনি।

সুথিডার সঙ্গে বাজিরালংকর্ণের প্রেম বহুদিন ধরেই চলছিল। তাই এই বিয়ের কারণ বুঝতে অসুবিধে হওয়ার কথা নয়।

৬৬ বছরের রাজার এর আগে তিনবার বিয়ে হয়েছে। কিন্তু কোনও বিয়েই টেকেনি। সাত সন্তানও রয়েছে বাজিরালংকর্ণের। এই সম্পর্কের টানাপোড়েনের মাঝেই ২০১৪ সালে সুথিডার সঙ্গে আলাপ হয় বাজিরালংকর্ণের।

তিন নম্বর স্ত্রীয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদের পরে বাজিরালংকর্ণ মানসিসভাবে ভেঙে পড়েছিলন। সুথিডা তখন থাই এয়ারওয়েজের বিমানকর্মী। তারপরেই তাঁকে নিজের দেহরক্ষীর ডেপুটি কম্যান্ডার হিসেবে সুডিথা(Suditha) নিয়োগ করেন বাজিরালংকর্ণ। এরপর ২০১৬ সালে রয়্যাল থাই সেনার জেনারেল হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয় সুথিডাকে। তার পরের বছরই রাজার ব্যক্তিগত দেহরক্ষীর ডেপুটি কম্যান্ডারের দায়িত্ব পান সুথিডা। প্রেম তখন চরমে। সেই প্রেম এতোদিনে পরিণতি পেল। সরকারিভাবে রাজার মুকুট মাথায় দেওয়ার আগেই এই চমকটা দিতে চেয়েছিলেন তিনি। সেটাই করলেন।