Taliban: পাকিস্তানের সাহায্যে আফগানিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন 'কলের পুতুল'? বলছে রিপোর্ট
Taliban Leaders (Photo Credit: Twitter)

কাবুল, ৭ সেপ্টেম্বর: মোল্লা হাসান আকুন্দ। আফগানিস্তানের (Afghanistan) পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এমনই একটি নাম ঘোরাফেরা করছে বিভিন্ন মহলে। রাষ্ট্রসংঘের জঙ্গি তালিকায়, যার নাম রয়েছে একেবারে প্রায় প্রথমের দিকে। রাষ্ট্রসংঘের জঙ্গি তালিকায় নাম থাকা মোল্লা হাসান আকুন্দকে আফগানিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করতে পারে তালিবান। পাকিস্তানের সাহায্য নিয়েই মোল্লা হাসান আকুন্দকে 'ইসলামিক এমিরেটের' পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা করা হতে পারে। সম্প্রতি এমনই একটি রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেছে।

আফগানিস্তানের ক্ষমতায় কারা থাকবে, তা নিয়ে তালিবানের মধ্যে শুরু হয়েছে অন্তর্দ্বন্দ। হাক্কানি নেটওয়ার্কের সঙ্গে মোল্লা ইয়াকুব গোষ্ঠীর বিবাদ শুরু হয়েছে বলে খবর। এমতাবস্থায় আফগানিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এমন কাউকে বেছে নেওয়া হতে পারে, যার পরিচিতি বেশ খানিকটা কম। সেই অনুযায়ী মোল্লা বরাদর এবং মোল্লা ওমরের ছেলে মোল্লা ইয়াকুব মোল্লা ইয়াকুন্দের দুই সহযোগী হতে পারেন বলে খবর। পাশাপাশি হাক্কানি নেটওয়ার্কের (Haqqani Network)অন্যতম মুখ সিরাজ হাক্কানিও তালিবান (Taliban) মন্ত্রিসভায় গুরুত্বপূর্ণ পদ পেতে পারেন বলে খবর। প্রসঙ্গত রাষ্ট্রসংঘের জঙ্গি তালিকায় প্রথম সারিতে রয়েছে সিরাজ হাক্কানির নাম। এই সিরাজ হাক্কানিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মতো কোনও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে আনা হতে পারে বলে মিলছে খবর।

পাশাপাশি তালিবানের মৌলবী নেতা হিবাতুল্লা আখুন্দজাদাকে দেশের অন্যতম প্রধান নেতা হিসেবে বেছে নেওয়া হতে পারে বলেও জানা যাচ্ছে।

আরও পড়ুন: Afghanistan's Panjshir Valley: পঞ্জশিরে তালিবান ঘাঁটি লক্ষ্য করে বিমান হামলা, নিহত বহু: রিপোর্ট

গত সপ্তাহে কাবুলে হাজির হন পাকিস্তানের (Pakistan) গোয়েন্দা সংস্থার (ISI) প্রধান ফৈয়াজ হামিদ। বেশ কয়েকদিন কাবুলে থাকার পর ফৈয়াজ হামিদ কাবুল থেকে ইসলামাবাদে (Islamabad) ফিরে গিয়েছেন বলে খবর। আইএসআইয়ের মদতেই আফগানিস্তানে নতুন করে সরকার গঠন পর্ব সম্পন্ন হবে বলেও মনে করছে বিভিন্ন মহল।

প্রসঙ্গত গত ১৫ অগাস্ট কাবুল দখল করে তালিবান। কাবুল দখলের পর আফগানিস্তানকে 'ইসলামিক এমিরেট' হিসেবে বিশ্বের দরবারে তুলে ধাররা চেষ্টা করে তালিবান। সেই সঙ্গে জানা যায়, মোল্লা বরাদরের নেতৃত্বেই আফগানিস্তানে নয়া সরকার গঠন করবে তালিবান। তবে অন্তর্বতী বিবাদের জেরে মোল্লা বরাদরের জায়গায় এবার মোল্লা হাসান আকুন্দের মতো কম গুরুত্বপূর্ণ নেতাকে প্রধানমন্ত্রী পদে তালিবান নির্বাচিত করতে পারে বলে খবর।