Afghanistan: তালিবানি ফতোয়ায় আফগানিস্তানের হেরাটে বন্ধ হল কো এডুকেশন, মেয়েরা আর একসঙ্গে ছেলেদের সঙ্গে বসে পড়তে পারবে না!

কাবুল, ২১ অগাস্ট: ফিরেছে তালিবান শাসন। ফিরল সেই আঁধার। আফগানিস্তানের হেরাট (Herat) প্রদেশে আর ছেলেদের সঙ্গে বসে স্কুল, কলেজ বা কোনও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করতে পারবে না সেখানকার মেয়েরা (Afghanistan Girls)। মেয়েদের জন্য আলাদা পড়াশোনার ব্যবস্থা থাকতে হবে, তা না হলে মেয়েদের অশিক্ষিতই থাকতে হবে। এমনই ফতোয়া দিল তালিবান  (Taliban)নেতারা। হেরাটের বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, লেকচারারদের সঙ্গে তিন ঘণ্টা বৈঠকের পর তালিবানের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হল, ছেলেদের সঙ্গে মেয়েরা আর কিছুতেই একই ঘরে বসে পড়াশোনা করতে পারবে না। আর হেরাটে শিক্ষা পরিকাঠামো এতটাই দুর্বল যে ছেলে-মেয়েরা একসঙ্গে না পড়লে মেয়েদের পড়াশোনা শেষ হয়ে যাবার আশঙ্কা থাকছে। কারণ সেখানে মহিলাদের জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একেবারে হাতেগোণা। দূরে থাকা মহিলারা সেইসব শিক্ষাকেন্দ্রে যেতে পারবেন না। আরও পড়ুন: 

সরকার গড়তে কাবুলে এলেন তালিবানের সহ প্রতিষ্ঠাতা বুরাদার, পলাতক প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানির ভাইও এখন তালিবান সমর্থক

এই দিকটা বিবেচনা করেই সেখানকার বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকরা তালিবান নেতাদের কাছে চিঠি লিখে বুঝিয়েছিলেন সহশিক্ষা বা কো এডুকেশন বা ছেলে-মেয়েদের একসঙ্গে পড়ার গুরত্ব। এরপরই তালিবান নেতারা বৈঠকে বসেন অধ্যাপকদের সঙ্গে। কিন্তু কোনও আবেদনই কাজে দিল না। তালিবান নেতাদের সাফ কথা। কোনওভাবেই মেয়েরা ছেলেদের সঙ্গে বসে পড়াশোনা করতে পারবে না। অধ্যাপকরা বলেছেন, এখন তাদের অঞ্চলে খুব বেশি মহিলারা উচ্চশিক্ষা নিচ্ছেন না। তাই মহিলাদের জন্য আলাদা উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়া সম্ভব নয়। তাই মহিলাদের পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যাবে কো এডুকেশনের নিয়ম তুলে দিলে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ তালিবান নেতারা নাকি বৈঠকে বলেন, সে যাই হোক, কো এডুকেশন কিছুতেই চলতে পারে না কারণ এতে সমাজে শয়তানের শিকড় জন্মাবে। তালিবানের এই ফতোয়ায় সবচেয়ে মুশকিলে পড়েছে প্রাইভেট কোচিং সেন্টারগুলি। সেখানে ছেলে-মেয়েরা একসঙ্গে না পড়লে, মেয়েরা যাবে কোথায়!