ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ছারখার পাকিস্তানের পাঞ্জা সাহিব গুরুদ্বার; তদন্তের দাবি জানিয়েছেন শিরোমণি আকালি দলের বিধায়ক মনজিন্দর সিং
Gurdwara Panja Sahib in Hasan Abdal in Pakistan. (Photo Credit: ANI)

ইসলামাবাদ, ১৮ অক্টোবর: ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড (Fire)। ছারখার হয়ে গেল পাকিস্তানের পাঞ্জা সাহিব গুরুদ্বার (Pakistan's Panja Sahib Gurdwara)। গত বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে পাকিস্তানের হাসান আবদাল (Hasan Abdal) শহরে। এহেন ভয়ঙ্কর অগ্নিকাণ্ডের জেরে এখন রীতিমত স্তব্ধ গোটা পাকিস্তান। স্থানীয়রা এই ঘটনাটিকে নিছকই দুর্ঘটনা হিসেবে ভাবলেও সমাজের বিভিন্ন অংশের দাবি কেউ বা কারা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে। এমনকী এই ঘটনায় তদন্তের দাবি জানিয়েছে, শিরোমণি আকালি দল বা এসএডি (Shiromani Akali Dal)। ইচ্ছাকৃতভাবেই কেউ এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে বলে অভিযোগ করেছেন শিরোমণি আকালি দলের নেতা তথা বিধায়ক মনজিন্দর সিং (Manjinder Singh)। তদন্তের (Investigation) দাবি জানিয়েছেন তিনি।

আগুন লাগার কিছুক্ষণের মধ্যেই এসে উপস্থিত হয় দমকল। ফলে অল্প সময়ের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়। তেমন বড় রকমের ক্ষতির খবর নেই বলেই জানা গিয়েছে। তবে আগুন লাগায় সামান্য ক্ষতি হয়েছে। এই ঘটনা প্রসঙ্গে হাসান আবদালের সহকারী কমিশনার আবদাল আদনান আঞ্জুম রাজা জানিয়েছেন, "গুরুদ্বারায় সেই সময় ওয়েল্ডিংয়ের কাজ চলছিল। সম্ভবত তা থেকেই আগুনের ফুলকি ছুটে আসে। এর থেকেই আগুন লেগে তা ছড়িয়ে পড়তে পারে।" সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে (ANI) দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমন কথাই জানিয়েছেন তিনি। আরও পড়ুন: Saudi Arabia Bus Accident: পবিত্র মদিনা শহরে ভয়াবহ পথদুর্ঘটনায় ৩৫ জন তীর্থযাত্রীর মৃত্যু

জানা গিয়েছে, সামনেই গুরু নানকের (Guru Nanak) ৫৫০তম জন্ম দিবস। সেই উপলক্ষ্যে ভারত ও পাকিস্তানের (India-Pakistan) মধ্যে সম্মিলিত চুক্তি অনুযায়ী করতারপুর করিডোর (Kartarpur Corridor) খুলে দেওয়া হবে। এছাড়াও, পাকিস্তান গত সপ্তাহে চূড়ান্ত একটি খসড়া চুক্তি ভারতের হস্তান্তর করেছে। যেখানে বলা হয়েছে, গুরু নানকের ৫৫০ তম জন্মবার্ষিকীর আগে গুরুদাসপুরের ডেরা বাবা নানকে করতারপুরের দরবার সাহেব গুরুদ্বারের সঙ্গে সংযুক্ত করা হবে।