Police Officer Touches Dead Woman’s Breast: মৃত মহিলার স্তনে কামুক হাত পুলিস অফিসারের! বন্দি হল ভিডিও
লস অ্যাঞ্জেলেস (প্রতীকী ছবি: Pexels)

লস অ্যাঞ্জেলেস, ৬ ডিসেম্বর: মহিলাদের যৌন নিগ্রহ (Sextual Harrasment) নিত্যকার ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এমনকী পারভার্টদের হাত থেকে নিস্তার নেই মৃত্যুর পরেও। সম্প্রতি লস অ্যাঞ্জেলেসে (Los-angeles) ঘটে গিয়েছে এমনই এক ঘটনা, যা উদাহরণ হয়ে থাকার মতো। লস অ্যাঞ্জেলেসের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, একটি আবাসনে এক মহিলার দেহ পড়ে থাকার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিস (Police)। তাঁর সঙ্গে যান এক সহকর্মীও। এক সময় নিজেদের গাড়ি থেকে কোনও একটি প্রয়োজনীয় জিনিস আনতে যান এক পুলিসকর্মী। সেই সুযোগেই মৃতদেহের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হয় অন্যজন। জানা গিয়েছে, মৃতার স্তনে কামুক স্পর্শ করেন তিনি। এই পুরো ঘটনাই জানা যায় একটি ভিডিও ফুটেজ থেকে।

আর এই ভিডিও অন্য কোথাও নয়, রেকর্ড হয় ওই পুলিসকর্মীর নিজের দেহের সঙ্গে লাগানো ক্যামেরাতেই। উল্লেখ্য, মার্কিন মুলুকে (America) প্রতি পুলিস অফিসারের ইউনিফর্মে (Uniform) এমন ক্যামেরা (Camera) লাগানো থাকে। তবে ওই কাণ্ড ঘটাবার সময় ক্যামেরা বন্ধ করে দেন অভিযুক্ত ওই পুলিস অফিসার। ফলে সব কিছুই হয়তো অজানা থেকে যেত, যদি ক্যামেরায় দৃশ্যের একাংশ রেকর্ড না হত। জানা গিয়েছে, ঘটনাচক্রে সুইচ বন্ধ করার পরেও পুলিসকর্মীর দেহে লাগানো ক্যামেরা অন্তত ২ মিনিট সচল ছিল। তখনই রেকর্ড হয়ে যায় ওই ভিডিও। পাক্কা দু'মিনিট সময় গোটা দৃশ্য নীরবে লেন্স বন্দি হয়ে যায় অভিযুক্ত বর্ষীয়ান ওই পুলিস অফিসারের দেহস্থ ক্যামেরায়। যে ঘটনা প্রকাশ্যে আসায় রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। আরও পড়ুন: Fire In Holiday Inn Express: ভোররাতে পাটায়ার হোটেলে আগুন, উদ্ধার অন্তত ৪০০ জনকে

কর্তৃপক্ষ ক্যামেরা রুটিন মাফিক পরীক্ষার সময় বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমসের খবর অনুযায়ী,  এরপরেই শুরু হয় বিভাগীয় তদন্ত (Investigation)। প্রাথমিক তদন্তে দোষ প্রমাণিত হওয়ায় অভিযুক্ত পুলিস অফিসারকে সাসপেন্ড (Suspand)করা হয়েছে।