Karachi Blast: করাচি বিস্ফোরণের আত্মঘাতী বোমারু ২ সন্তানের মা, এম ফিলের পর শিক্ষকতা করতেন স্কুলে
Karachi Blast Accused (Photo Credit: Twitter)

ইসলামাবাদ, ২৭ এপ্রিল:  করাচি (Karachi) বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে গাড়িতে বিস্ফোরণের জেরে মঙ্গলবার ৪ জনের মৃত্যু হয়। করাচিতে বিস্ফোরণের পর এক আত্মঘাতী মহিলার নাম উঠে আসে। জানা যায়, মঙ্গলবার বোরখা পরিহিত এক মহিলা করাচি  বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে রাখা একটি গাড়িতে প্রবেশ করেন। এরপরই সশব্দে সেখানে বিস্ফোরণ হয়। পাকিস্তানে বিস্ফোরণের পর আত্মঘাতী মহিলার পরিচয় নিয়ে জল্পনা শুরু হয়। বিস্ফোরণের পরই ঘটনার দায় স্বীকার করে বালোচ লিবারেশন আর্মি (BLA)।

জানা যায়, করাচিতে  বিস্ফোরণের সঙ্গে যে নিজেকে উড়িয়ে দিয়েছে, তার নাম শাহরি বালোচ (Balochistan)। জীববিদ্যায় স্নাতকোত্তর করে এক চিকিৎসককে বিয়ে করেন শাহরি। এরপর এম ফিল করে আফগানিস্তানের একটি স্কুলে শিক্ষকতা করছিলেন। তবে আফগানিস্তানের জঙ্গিদের একটি স্কুলেই শিক্ষকতা করছিলেন শাহরি বালোচ। তাঁর ২ সন্তান রয়েছে।

আরও পড়ুন:  Karachi University Blast: 'চিন-পাকিস্তানের সম্পর্ক ইস্পাত কঠিন', করাচি বিস্ফোরণে ৩ চিনা নাগরিকের মৃত্যুতে মন্তব্য ইসলামাবাদের

গত ২ বছর আগে বালোচ লিবারেশন আর্মিতে যোগ দেন শাহরি। ২ সন্তানের জননী শাহরি কিছুতেই বিস্ফোরণের সঙ্গে নিজেকে উড়িয়ে দিতে পারেন না বলে বালোচ লিবারেশন আর্মি তাঁকে এই কাজ থেকে অব্যাহতি দিতে চায়। তবে শাহরি কিছুতেই পিছিয়ে যাবেন না বলে জানান। বালোচ লিাবরেশন আম্রিম মজিদ ব্রিগেডের সদস্য শাহরি এরপর করাচিতে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিজেকে শেষ করে দেন। বালোচিস্তানে যাতে চিন প্রবাব বিস্তার করতে না পারে, তার জন্য তৎপর বালোচ লিবারেশন আর্মি। গতকালের বিস্ফোরণের পর এই সংগঠন ফের চিনা নাগরিকদের নিশানায় রেখে কাজ করবে বলে হুমকি দিয়েছে।

গতকালের বিস্ফোরণের পর বালোচ লিবারেশন আর্মির মজিদ ব্রিগেড একটি বিবৃতি প্রকাশ করে। সেখানে জানানো হয়, যে চিনা নাগরিকদের মৃত্যু হয়েছে, তার জন্য দায়ি বিএলএ। ভবিষ্যতেও তারা চিনাদের নিশানা করবে বলে স্পষ্ট জানানো হয়। বালোচিস্তান থেকে চিনকে সরতে হবে। পাকিস্তান এবং বালোচিস্তান থেকে চিন নিজেদের আধিপত্য বিস্তার না রুখলে মজিদ ব্রিগেড সহ বালোচ লিবারেশন আর্মি একের পর এক বিস্ফোরণ ঘটাবে বলেও দেওয়া হয় হুমকি।

যদিও ইসলামাবাদের দাবি, চিনের সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্ক ইস্পাত কঠিন। কোনওভাবেই দুই দেশের সম্পর্কে চিড় ধরবে না বলে জানায় পাকিস্তান।