Mamata Banerjee: 'এভাবে কথা বলতে পারেন না', জগদীপ ধনখড়কে কড় চিঠি মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির
মমতা ব্যানার্জি (Photo Credit: Facebook)

কলকাতা, ২ মে: করোনাভাইরাসের (Coronavirus) সংক্রমণ নিয়ে রাজ্যে পরিস্থতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে। রাজ্যের ১০টি জেলাকে রেড জোনের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। করোনা মোকাবিলায় তৎপর রাজ্য প্রশাসন। এহেন পরিস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী-রাজ্যপাল (Governor) বাদানুবাদে রাজ্য রাজনীতি সরগরম। গত মাসের শেষের দিক থেকে শুরু হয়েছে এই লড়াই। কখনও টুইট কিংবা কখনও চিঠি পাঠিয়ে শুরু হয়েছে লড়াই। তবে, এবার কিছুটা সময় নিয়ে গত মাসে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের (Jagdeep Dhankhar) লেখা জোড়া চিঠির কড়া জবাব দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। আরও পড়ুন: Ration Corruption: মুর্শিদাবাদে রেশনের অনিয়ম ও নিম্নমান নিয়ে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ গ্রাহকদের 

চিঠিতে মমতা জানিয়েছেন, স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে কোনও রাজ্যপাল এমন ঘটনা করেননি। চিঠিতে রাজ্যপালের ভাষা অত্যন্ত অপমানজনক এবং নজিরবিহীন বলে দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে তিনি আরও বলেন, দেশের সাংবিধানিক এবং রাজনৈতিক ইতিহাসে এই ঘটনা নজিরবিহীন। পাশাপাশি চিঠিতে রাজ্যাপাল পদটির সাংবিধানিক সীমাবদ্ধতার কথাও জগদীপ ধনখড়কে স্মরণ করিয়ে দিলেন তিনি। চিঠিতে মমতা স্পষ্ট লিখেছেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি এমন ভাষা প্রয়োগের নজির নেই।’ সুপ্রিম কোর্টের একাধিক রায় উল্লেখ করা হয়েছে চিঠিতে। করোনা দুর্যোগ পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে এহেন ব্যবহারের তীব্র সমালোচনা করেছেন মমতা।

ধনখড়ের বিরুদ্ধে সাংবিধানিক ধর্ম ও শিষ্টতার গণ্ডি ছাড়ানোর পাশাপাশি, তাঁর সরকারের মন্ত্রী-আমলাদের আক্রমণ এবং রাজ্যের প্রশাসনিক কাজে হস্তক্ষেপের অভিযোগ তোলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। পাশাপাশি এদিনই করোনা সংক্রান্ত তথ্য লোকানো হচ্ছে বলে রাজ্য সরকারকে খোঁচা দেন রাজ্যপাল। স্বচ্ছতা বজায় রাখারও নির্দেশ দেন তিনি। ১ মে কেন কোনও বুলেটিন প্রকাশ করা হল না, সেটি নিয়েও শনিবার সকালে প্রশ্ন তোলেন তিনি।