Dilip Ghosh: পশ্চিমবঙ্গে ভ্যাকসিন নিয়ে 'কালো বাজারি' বন্ধ হোক, অভিযোগ দিলীপের
দিলীপ ঘোষ

দিল্লি, ৩ অগাস্ট: পশ্চিমবঙ্গে ,ভ্যাকসিন (Corona Vaccine) নিয়ে রাজনীতি চলছে। সেই সঙ্গে হচ্ছে কালো বাজারি। ভ্যাকসিন নিয়ে এই ধরনের কালো বাজারি বন্ধ করা হোক। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের সঙ্গে দেখা করে এমনই অভিযোগ করলেন পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডব্যর সঙ্গে দেখা করেন দিলীপ ঘোষ। দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর সংবাদমাধ্যমের সামনে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন বিজেপির (BJP) রাজ্য সভাপতি।

আরও পড়ুন: Taliban: আফগান সীমান্তে নৃশংস 'হত্যালীলা' তালিবানের, প্রাণ হাতে পালাচ্ছেন স্থানীয়রা

দিলীপ ঘোষ বলেন, বাংলায় যেভাবে ভ্যাকসিন নিয়ে রাজনীতি চলেছে, সে বিষয়ে কেন্দ্রকে অবগত করা হয়েছে। শিগগিরই এই ভ্যাকসিন নিয়ে রাজনীতি বন্ধ করা হোক বলেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের কাছে তাঁরা দাবি করেন বলে জানান দীলীপ ঘোষ।

পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, বর্তমানে রাজ্য সরকারের (West Bengal) কাছে কমপক্ষে ৩০ লক্ষ করোনা ভ্যাকসিন রয়েছে কিন্তু সেগুলি মানুষের কাছে পৌঁছচ্ছে না। নির্দিষ্টভাবে দেখাশোনার অভাবেই সাধারণ মানুষ ভ্যাকসিন পাচ্ছেন না। ভ্যাকসিনের আকাল চলছে বলেও অভিযোগ করেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।

তিনি আরও অভিযোগ, বর্তমানে ভ্যাকসিন নিয়ে রাজ্যে কালো বাজারি চলছে। এই ধরনের কালো বাজারি বন্ধ হওয়া প্রয়োজন অবিলম্বে। কেন্দ্রীয় সরকার যাতে নিজেদের দায়িত্বে বিভিন্ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে থেকে মানুষকে ভ্যাকসিন দেয়, সেই দাবিও করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

এদিকে ভ্যাকসিন নিয়ে যখন দিলীপ ঘোষ সুর চড়াচ্ছেন রাজ্যের বিরুদ্ধ, সেই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) বার বার কেন্দ্রের দিকে আঙুল তুলেছেন। উত্তরপ্রদেশ বা রাজস্থানের মতো রাজ্যের তুলনায় বাংলাকে অনেক কম ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার ভ্যাকসিন সময়মতো দিচ্ছেনা বলেই রাজ্যে অপ্রতুলতা দেখা দিয়েছে বলে একাধিকবার অভিযোগ করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।