WB CID: বিচারপতি অমৃতা সিনহার স্বামীকে হেনস্থার অভিযোগ অস্বীকার করল সিআইডি
Photo Credits: IANS

কলকাতা: কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিনহার স্বামী (Calcutta HC Justice Amrita Sinha's husband) ও বর্ষীয়ান আইনজীবী প্রতাপচন্দ্র দে (Pratap Chandra Dey)-কে একটি মামলার তদন্তে হেনস্থা করার অভিযোগ উঠেছে পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি (Criminal Investigation Department)-র বিরুদ্ধে। বিষয়টি নিয়ে জলঘোলাও হচ্ছে অনেক। এর মাঝেই বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে বিবৃতি প্রকাশ করল সিআইডি (CID)। আরও পড়ুন: WB Primary Teacher Recruitment Scam: প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় কলকাতা হাইকোর্টে খামবন্ধ রিপোর্ট জমা CBI-এর

একদিন আগেই সিআইডি-র বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ জানিয়ে রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু (President Droupadi Murmu) ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (Prime Minister Narendra Modi) একটি চিঠি পাঠিয়েছেন প্রতাপচন্দ্র দে। সিআইডির তদন্তকারীরা তাঁর স্ত্রী কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিনহার বিরুদ্ধে বিবৃতি দিতে চাপ দিচ্ছেন বলেও চিঠিতে অভিযোগ করেন প্রতাপবাবু।

এই চিঠির কপি তিনি পাঠিয়েছেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘওয়াল, পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোস, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কলকাতা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশনের কাছে। একটি মামলার তদন্তের জন্য জেরা করতে ডেকে প্রতাপচন্দ্র দে-কে তাঁর স্ত্রী অমৃতা সিনহার বিরুদ্ধে বিবৃতি দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ জানিয়েছেন।

তার ঠিক পরের দিনই সিআইডি-র তরফে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানানো হল, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী একটি মামলার তদন্তে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য গত ১ ও ১৬ ডিসেম্বর প্রতাপচন্দ্র দে-কে তলব করা হয়েছিল। তিনি নির্ধারিত সময়ের পরে হাজির হলেও এর জন্য কোনও সূচনা দেননি। অন্যদিকে সিআইডি জেরার সময় তাঁর সঙ্গে ভালো ব্যবহার করার পাশাপাশি চা ও জল খেতে দেওয়া হয়। একটানা প্রশ্নও করা হয়নি তাঁকে। এছাড়া যেখানে প্রতাপচন্দ্র দে-কে জেরা করা হয়েছে সেখানে সিসিটিভিও লাগানো ছিল। আসলে তদন্তকে ভুলপথে চালানো করার জন্য ও প্রভাবিত করার জন্য মিথ্যে অভিযোগ জানানো হচ্ছে। আরও পড়ুন: PIL Against SSKM: আর্থিক দুর্নীতির মাস্টারমাইন্ডদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ, পিজি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে জনস্বার্থ মামলা কলকাতা হাইকোর্টে