Shootout At Murshidabad: কাকা-ভাইপোকে লক্ষ্য করে গুলি, গুরুতর আহত অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র
Photo Source: PIXABAY

মুর্শিদাবাদ, ২০ জানুয়ারি: ফের শুটআউট মুর্শিদাবাদে(Shootout At Murshidabad)। এবার গুলিবিদ্ধ অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্র। কাকুর সঙ্গে বাড়ি ফেরার পথে দুষ্কৃতীদের গুলিতে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ওই ছাত্র। গুরুতর আহত অবস্থায় মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজে(Murshidabad Medical College) ভর্তি রয়েছে অষ্টম শ্রেণীর ওই ছাত্র। স্থানীয় সূত্রে খবর, অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রটির কাকা পেশায় স্বর্ণ ব্যবসায়ী। ছিনতাই করার লক্ষ্যে তাদের পথ আটকায় দুষ্কৃতীরা। প্রাণের ভয়ে স্কুটি ফেলে দৌড়তে শুরু করেন কাকা-ভাইপো। সেসময় আচমকাই গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। কিশোরের পেটে গুলি লাগে।

বহরমপুরের খাগড়ার বাসিন্দা উৎপল সেন। দৌলতাবাদে একটি সোনার দোকান রয়েছে তাঁর। রবিবার রাতে অন্য দিনের মত স্কুটিতে চড়ে ভাইপোকে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন উৎপলবাবু। সেই সময় বালিরঘাট এলাকায় বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী তাদের পথ আটকায়। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্কুটি নিয়ে মাটিতে পড়ে যান তাঁরা দু'জনেই। এরপর আতঙ্কে দৌড়তে গেলে পিছন থেকে গুলি ছোঁড়ে দুষ্কৃতীরা। অল্পের জন্য ব্যবসায়ী কাকু রক্ষা পেলেও পেটে গুলি লাগে কিশোরের। মাটিতে লুটিয়ে পড়ে যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকে সে। আরও পড়ুন: Tiger Fear in Konnagar: রাতের অন্ধকারে রাস্তায় ঘুরছে অজানা প্রাণী, বাঘের আতঙ্কে কাঁপছে কোন্নগর

 কাকা-ভাইপোর চিৎকারে রাস্তায় বেরিয়ে আসেন স্থানীয় বাসিন্দারা। এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান দুষ্কৃতীরা। এরপরই কাকা-ভাইপোকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ব্যবসায়ী উৎপল সেনের থেকে সোনা লুটপাটের জন্যই কী এই হামলা চালানো হয়েছে। নাকি এর পিছনে রয়েছে অন্য কোনও উদ্দেশ্য। সেটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

বছরের শুরুতেই খড়গ্রামে শুটআউটে গুলিবিদ্ধ হয়েছিল রতনপুরের এক স্কুল ছাত্রসহ দু'জন। ঘটনায় অভিযুক্ত নাজিমুল শেখ গুলি চালানোর পর থেকেই পলাতক ছিল। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আরও একটি শুটআউটের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়াল এলাকায়।