Red Zone Division: রাজ্যের রেডজোনগুলিকে তিনটি ভাগে ভাগ করা হচ্ছে বলে ঘোষণা করেন মমতা ব্যানার্জি
Mamata Banerjee. Photo Source: ANI/Twitter

কলকাতা, ১২ মে: আজ নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee) জানান, রাজ্যে রেড জোনকেও তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি তিনি আরও জানিয়ে দেন, “পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে আসছেন। আরও ১০০টি ট্রেন রাজ্যে আসবে।” মহারাষ্ট্র থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরাতে উচ্চবাচ্য করছেন না মমতা। এনিয়ে কিছুদিন এগেই সরগরম হয়ে উঠেছিল রাজনীতির মঞ্চ। সেই অভিযোগ নস্যাৎ করে মমতা ব্যানার্জি এদিন সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, “ইতিমধ্যেই ৯টি ট্রেন পশ্চিমবঙ্গে আসার কথা রয়েছে। ১টি আজই আসছে। আরও ১০০টি ট্রেনকে আমরা রাজ্যে আসার অনুমতি দিয়েছি। তবে সমস্ত কিছুই ধাপে ধাপে করতে হবে। কারণ যারা ফিরছেন তাদের সকলের স্বাস্থ্যপরীক্ষা করানো হচ্ছে এবং তাদেরকে বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করছে রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যেই প্রায় ১ লাখ মানুষ রাজ্যে ফিরেছেন। তাই তাড়াহুড়ো না করে বাকি রাজ্যে থাকা মানুষদেরও আমরা ধীরে ধীরে ফিরিয়ে আনব।"

এদিন বিজেপির নাম না করেই তিনি আরও বলেন, "ভোট তো এখনও দেরি আছে, এত তাড়াতাড়ি দাঙ্গা, কুৎসা, চক্রান্ত! এমন পরিস্থিতিতে তা করা যায়? বাংলাকে অপমান করতে পারেন কারণ আপনারা বাংলার নন বলে। 'প্ররোচনা দিয়ে বিভেদ ছড়ানো হচ্ছে। এটা বিভেদ সৃষ্টি করার সময় নয়। এত তাড়াতাড়ি ধৈর্য হারালে হবে! নির্বাচন তো আগামী বছরের মে মাসে! বাংলার বদনাম হলে আপনাদের গায়ে লাগে না? আমরা তো কোনও রাজ্যের বদনাম করছি না।" আরও পড়ুন, ভিন রাজ্য থেকে আরও ১০০ ট্রেন আসবে বাংলায়, দাবি মমতা ব্যানার্জির

দেশে লকডাউনের মেয়াদ কি ফের বাড়বে? প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির এক মন্তব্যে এই জল্পনা আরও বেড়েছে। গতকাল বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী। সূত্রের খবর, ওই বৈঠকেই প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি মনে করেন, প্রথম দফার লকডাউনে যে সব পদক্ষেপের প্রয়োজন ছিল, দ্বিতীয় দফার লকডাউনে তার দরকার হয়নি। সেইরকম ভাবেই তৃতীয় দফার লকডাউনে যে সব ব্যবস্থা নিতে হয়েছে, চতুর্থ দফার লকডাউনে তার প্রয়োজন পড়বে না।